মেইন ম্যেনু

সোমবারও বিক্ষোভ করবেন শিক্ষার্থীরা

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে আগামীকাল সোমবারও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবেন শিক্ষার্থীরা।

রোববার সকাল থেকে রাজধানীর রামপুরায় ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মূল সড়ক প্রগতি সরণীতে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। বিকেল ৪টার দিকে তাদের দিনের কর্মসূচি সমাপ্ত করেন। আগামীকাল সোমবার সকালে তারা আবারও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবেন বলে জানান।

রোববার বেলা ১১টার দিকে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি ও আশপাশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রামপুরার মূল সড়ক প্রগতি সরণীতে অবস্থান নিয়ে যানচলাচল বন্ধ করে দেন। এতে কুড়িল-উত্তরার সঙ্গে রামপুরা দিয়ে মৌচাক-মালিবাগ এলাকার যানচলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। এ ছাড়া রামপুরা দিয়ে গুলশান, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, বনানী, লিংক রোড, বনশ্রী, মুগদা, বাড্ডায় যাতায়াত করা কঠিন হয়ে পড়ে।

এদিকে, ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ মেডিক্যাল, নর্দার্ন মেডিক্যাল, নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি, স্টেট ইউনিভার্সিটি, শান্তা মারিয়াম ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা।

সকাল থেকেই তারা সেখানে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। বিকেলে বৃষ্টি এলেও তারা সেখান থেকে সরে যাননি। বিকেলে ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটিসহ আরো কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪০০-৫০০ শিক্ষার্থী এসে ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে তারা দিনের কর্মসূচি শেষ করে ঘরে ফিরে যান।

শিক্ষার্থীরা জানান, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন। তারা টিউশন ফি’র জন্য নীতিমালা প্রণয়নের দাবি জানান। তারা মনে করেন, নীতিমালা থাকলে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় ইচ্ছেমতো টিউশন ফি বাড়াতে পারবে না।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষে এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির ছাত্র বাঁধন বলেন, ‘আমরা অমানবিক নই। আন্দোলন চলাকালে আমরা অ্যাম্বুলেন্স ও শিশুদের বহনকারী গাড়ি চলাচলে বাধা দেইনি।’






মন্তব্য চালু নেই