মেইন ম্যেনু

সোহাগপুর বিধবাপল্লী এখন ‘বীরকন্যা পল্লী’

একাত্তরে স্বামী-স্বজন ও সম্ভ্রমহারা মায়েদের সম্মানে শেরপুরের সোহাগপুর ‘বিধবাপল্লী’ এখন থেকে ‘বীরকন্যাপল্লী’ হিসেবে অভিহিত হবে। সাবেক সেনাপ্রধান মো. হারুন-অর-রশিদ বীরপ্রতীক ৩ অক্টোবর সোমবার দুপুরে ‘বীরকন্যাপল্লী’তে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

এসময় তার সঙ্গে একমত পোষণ করে বক্তব্য রাখেন শেরপুরের জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টরা।

স্বেচ্ছাসেবী নারী সংগঠন ‘চেষ্টা’র উদ্যোগে বিধবাপল্লীতে এদিন ১৪ বীরাঙ্গনাকে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। নালিতাবাড়ীর ইউএনও তরফদার সোহেল রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সেনাপ্রধান মো. হারুন-অর-রশিদ বীরপ্রতীক।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক ডা. এএম পারভেজ রহিম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল ইসলাম হিরু, চেষ্টা নারী সংগঠনের সভানেত্রী সেলিনা বেগম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা জিয়াউল হোসেন মাস্টার প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ২৫ জুলাই সোহাগপুরে পাকহানাদার বাহিনী অতর্কিতে হামলা চালিয়ে নিরীহ ও নিরস্ত্র ১৮৭ জন পুরুষকে নির্বিচারে হত্যা করে। অসংখ্য নারী সেদিন পাশবিক নির্যাতনের শিকার হন।






মন্তব্য চালু নেই