মেইন ম্যেনু

সৌদিতে হাজিদের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

সৌদি আরবের মিনায় পদদলিত হয়ে ৩ শতাধিক হাজির মৃত্যু এবং ৪ শতাধিকের আহত হওয়ার ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী নিহতদের বিদেহি আত্মার মাহফিরাত কামনা করেন। আর আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন।

জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে পাঠানো শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী এমন একটি ঘটনায় তার গভীর শোকের কথা জানিয়েছেন।

এছাড়াও মিনায় বাংলাদেশি হাজিদের কেউ এই দুর্ঘটনায় পড়েছেন কিনা তা জানতে ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

হজের তৃতীয় দিনে বৃহস্পতিবার মিনায় পদদলিত হয়ে কমপক্ষে ৩১০ জন হাজি প্রাণ হারিয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো সাড়ে চারশ। হতাহতরা কোন দেশের তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। সৌদি আরবের আল আখবারিয়া টেলিভিশনে এই দুর্ঘটনাটি প্রথম প্রচারিত হয়।

এদিকে সরকারি নিউজ চ্যানেল আল আরাবিয়া জানিয়েছে, দুর্ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছে সৌদি কর্মীরা।

বৃহস্পতিবার হজযাত্রীরা হজের অন্যতম আনুষ্ঠানিকতা জামারাহ অর্থাৎ শয়তানকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করার জন্য মিনায় জড়ো হয়েছিলেন। কিন্তু জামারাহ শুরু হওয়ার আগেই মিনার ২০৪নং সড়কে এই মর্মান্তিক পদদলিত হওয়ার ঘটনাটি ঘটে বলে আল জাজিরা জানিয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে এই দুর্ঘটনার কারণ জানা যায়নি।

এবার হজ মৌসুমে সৌদিতে দুর্ঘটনা যেন পিছুই ছাড়ছে না। এর আগে চলতি মাসের প্রথম দিকে মক্কার মসজিদুল হারামে ক্রেন দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন ১০৯ জন হাজি। এ ঘটনায় আহত হয়েছিলেন ২৩৮ জন। হতাহতদের মধ্যে অনেক বিদেশি হাজিও ছিলেন। এসব হতাহতের জন্য কোটি কোটি রিয়ালের আর্থিক সহায়তা ঘোষণা করেছে সৌদি সরকার। এছাড়া হাজিদের হোটেলে কয়েক দফা অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় হতাহত হয়েছিলেন আরো বেশ কয়েকজন হাজি।






মন্তব্য চালু নেই