মেইন ম্যেনু

সৌদির সঙ্গে রোজা-ঈদ পালনে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি

সৌদির সঙ্গে দিন ও সময়ের মিল রেখে বাংলাদেশেও একই সময়ে রোজা ও ঈদ উদযাপন করা যায় কিনা এ নিয়ে বড় কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকে মতামত (ফতোয়া) গ্রহণ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে মার্চের শেষ সপ্তাহেই এ সংক্রান্ত ফতোয়া একটি বই আকারে প্রকাশ করবে প্রতিষ্ঠানটি।

চিঠিটি গত বছরের শেষ দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে লিখেছিলেন রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বসবাসকারী একজন প্রকৌশলী। এরপর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ওই চিঠি ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজালের কাছে পাঠায়। আর সে চিঠির পরিপ্রেক্ষিতেই ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফাবা) এ বিষয়ে ফতোয়া জারির প্রস্তুতি নিচ্ছে।

জানা গেছে, গত ১৬ নভেম্বর ইফাবার গবেষণা বিভাগ বিষয়টির আলোচনা-পর্যালোচনা ও গবেষণার নিমিত্তে মজলিসে দাওয়াতুল হকের আমির আল্লামা মাহমুদুল হাসান পরিচালিত জামিয়া ইসলামি দারুল উলুম মাদানিয়ার ফতোয়া বিভাগে পাঠানো হয়। ২৩ জানুয়ারি ইসলামি বিধিবিধান মোতাবেক ব্যাখ্যা দিয়ে ফতোয়া দেন মাদ্রাসার ইফতা বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র মাওলানা ফখরুল আমীন বিন ইবরাহীম। এই ফতোয়াপত্র সত্যায়ন করেন মুফতি মাহমুদুল হাসান, মুফতি সাদিকুল ইসলামসহ ১১ জন ফতোয়া বিশেষজ্ঞ।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা গেছে, মক্কার সঙ্গে একই সময়ে ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ধর্মীয় ব্যাখ্যা জানতে আগ্রহী। এ কারণেই আবেদনকারীর চিঠি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছানোর পর এটি ইফাবার কাছে পাঠানো হয়। এরপর ইফাবা নিজস্ব বিশেষজ্ঞ ছাড়াও কওমি মাদ্রাসার দৃষ্টিভঙ্গি জানতে চায়। ফতোয়া চাওয়া হয় সরকারপন্থী আলেম মাওলানা মাহমুদুল হাসানের মাদ্রাসার ফতোয়া বিভাগে। ১৬ নভেম্বর প্রতিষ্ঠানটির বিভাগীয় পরিচালক ডা. খিজির হায়াত খান স্বাক্ষরিত চিঠিতে মতামত চাওয়া হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই