মেইন ম্যেনু

সৌরজগতের কাছেই পৃথিবীর মতো গ্রহের সন্ধান

বহুদিন ধরেই পৃথিবীর মতো মানুষের বাসযোগ্য গ্রহের সন্ধান করছেন বিজ্ঞানীরা। যদিও প্রতিবেশি গ্রহ মঙ্গলেই এখনও মানুষের যাওয়া সম্ভব হয়নি। তবে চেষ্টা থেমে নেই। মহাকাশে পাঠানো দূরবীক্ষণ যন্ত্রের মাধ্যমে ধারণা নেয়ার চেষ্টা চলছে আগে থেকেই। ফলাফলও সন্তোষজনক। যদিও ধারণা হওয়া সেসব গ্রহ এখনও আমাদের কাছে অধরা।

সম্প্রতি সেই আশার আলো আরো উজ্জ্বল করেছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। জার্নাল ‘নেচার’ বুধবার এই সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। যেখানে বলা হয়েছে সৌরজগতের খুব কাছেই এমন একটি গ্রহের সন্ধান পাওয়া গেছে, যা উপাত্তগত দিক থেকে পৃথিবীর মতোই।

সৌরজগতের খুব কাছের নক্ষত্র প্রক্সিমা’য় এটির অবস্থান। ঐ গ্রহটির নাম রাখা হয়েছে প্রক্সিমা- বি।

গত একমাস যাবৎ প্রক্সিমা সেন্টরি’র দিকে নজর ছিল বিজ্ঞানীদের। ইউরোপীয় মানমন্দির থেকে তুলেছেন নানা ছবিও। আর সেগুলো বিচার করেই তারা জানিয়েছেন, সূর্যের যতটা কাছে থাকলে আবহাওয়াগত দিক থেকে তা মানুষের উপযোগী হতে পারে গ্রহটি রয়েছে সেই অবস্থানেই। আকারের দিক থেকেও এটি কিছুটা বড় হলেও প্রায় পৃথিবীর সমানই।

কোনো স্পষ্ট ধারণা না হলেও দূর থেকে তোলা নক্ষত্র এবং গ্রহটির বিচ্ছুরিত আলোর নানা দিক বিবেচনা করে তারা বলছেন, গ্রহটিতে পানি থাকাটাই স্বাভাবিক। আর তা যদি থাকে, তবে সেখানে জীবন থাকতে কোনো বাধা নেই।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রক্সিমা বি’র অবস্থান ৪ আলোকবর্ষ দূরে। সৌরজগতের এত কাছে এমন গ্রহের সন্ধানলাভ এবারই প্রথম। আশা জাগিয়ে তারা বলছেন, আজ না হোক অদূর ভবিষ্যতে অবশ্যই সেখানে অভিযান চালাতে পারবে মানুষ। হয়তো নিকট ভবিষ্যতেই গ্রহটিতে রোবোটিক অভিযান পরিচালনা করা ঠিকই সম্ভব হবে।

এর আগে কেপলার টেলিস্কোপের মাধ্যমে শতাধিক পৃথিবী সদৃশ গ্রহের সন্ধানের কথা জানায় নাসা। যদিও সেগুলোতে অভিযান চালানোর বিষয়টি এখনও মানুষের কাছে স্বপ্ন। তবে স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেয়ার নানা নাজির স্থাপন করা মানুষ হয়তো একদিন ঠিকই পৌঁছবে সেসব গ্রহে। ভীনগ্রহে পড়বে মানুষের পা। গড়ে তুলবে নতুন সভ্যতা।






মন্তব্য চালু নেই