মেইন ম্যেনু

স্কুলে ক্লাস করে কুকুর!

অবিশ্বাস্য মনে হলেও ঘটনা কিন্তু তাই। স্কুলে ক্লাস করে কুকুর! আবার নাকি পড়তেও পারে। ব্রিটেনের ব্রিস্টলের নিকটবর্তী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি কুকুর এখন রীতিমত আলোচনার বিষয়।

টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানা গেছে।

২ বছর বয়সী কুকুরটির নাম ফার্নি। ব্রিটেনের জাতীয় নীতির অধীনে শিশুদের মানসিক উৎকর্ষতা ও আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রত্যেক ক্লাসেই কুকুর রাখা হয়।

ব্রিস্টলের উইনফোর্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফার্নিকে (কুকুর) আনার পর চারটি ফ্লাশকার্ডের নির্দেশনা মেনে চলতে শিখেছে।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক.নিক বলেন, ফার্নি কাগজে লেখা ৪টি শব্দ মেনে চলতে পারে। ‘বসা, শোয়া, গড়াগড়ি দেয়া ও পাক দেয়া’ এ শব্দগুলো কাগজে লিখে তার সামনে ধরলেই নির্দেশ মেনে চলে ফার্নি।

নিকের দাবি, ফার্নিকে আরো কিছু সময় অনুশীলন করানো হলে ২০টিরও বেশি শব্দ শিখতে পারবে। শিশুরা যখন দেখে একটি কুকুর ফ্লাশকার্ডে লেখা শব্দগুলো পড়তে পারছে এতে তারাও অনুপ্রাণিত হয়। এটি একটি অসাধারণ মোটিভেশন হিসেবে কাজ করে।

এরই মধ্যে কুকুরটি বাচ্চাদের কাছে তুমুল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কুকুরটি স্কুলটিতে রীতিমত একজন তারকার সম্মান লাভ করে।






মন্তব্য চালু নেই