মেইন ম্যেনু

স্টার্টাপদের সফলতার পথ খুলে দেবে এই দারুণ কৌশলগুলো

নতুন ব্যবসা শুরু করেছেন? চাকরীর অভাবের শিক্ষিত তরুণ সমাজের এখন প্রথম পছন্দ ব্যবসা। কিন্তু কিছু বিষয় ভাববার আছে। যেমন, আমরা যখন চাকরি করি তখন শুধু নির্দেশ মত কিছু কাজ করি। আমাদের দায়িত্ব থাকে নির্দিষ্ট। তার বাইরে কোম্পানির ভাল-মন্দ বলতে আমরা খেয়াল রাখি তার রেপুটেশনের এবং আমাদের উপর প্রদত্ত নিয়ম-কানুনের দিকে। কিন্তু ব্যবসা যখন আমাদের নিজের তখন কোম্পানিও আমাদের। আমাদের নিজ হাতেই গড়ে তুলতে হয় রেপুটেশন, আমরাই তৈরি করি নিয়ম-কানুন। তাই দায়িত্ব অনেক বড়।

ব্যবসার পথ সুগম নয়, বরং অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে তবে দেখা মেলে সফলতার। তবে আমরা যদি সফল মানুষদের দেখানো পথে চলি এবং কিছু দিক-নির্দেশনা মেনে চলি তাহলে অনেকটাই সহজ হয়ে আসবে কাজগুলো। আসুন জেনে নিই, নতুন ব্যবসায় সফল হওয়ার কয়েকটি কৌশল।

একটি পণ্যে মনোযোগ দিন
প্রথমেই কয়েক প্রকারের পণ্য নিয়ে কাজ করবেন না। বরং একটি নির্দিষ্ট পণ্য বাছাই করুন। যে পণ্যের ক্ষেত্রে আপনার লিঙ্ক সবচেয়ে ভাল, জ্ঞান বেশী, দক্ষতা ভাল সেই পণ্যকে বেছে নিন আপনার টার্গেট হিসেবে। যেমন, আপনি যদি মোবাইলের ব্যবসা করতে চান তাহলে মোবাইল দিয়েই শুরু করুন। একই সাথে মোবাইলের ব্যাক কভার, সার্ভিসিং ইত্যাদি লাভজনক মনে হলেও পরে যোগ করুন। মনোযোগকে কেন্দ্রীভূত করুন একটি দিকে।

কাজের লোক নিন
সেইসব মানুষকেই কাজে রাখুন যারা আপনার প্রতিষ্ঠানকে সিরিয়াসলি নেবে। যারা ঠিকমত কাজ করছে না, তাদেরকে বদলে দ্রুত অন্য লোক নিয়োগ করুন। কোনভাবেই নিজে সময় নষ্ট করবেন না, কর্মীদের সময় নষ্ট করার সুযোগ দেবেন না।

পণ্যের ফ্লাট একটি দাম নির্ধারণ করুন
আপনার পণ্যের সাথে কুরিয়ার চার্জ, বিকাশ চার্জ এমন টুকরো টুকরো চার্জ থাকলে তা একবারে যোগ করে একটি অংক ক্রেতাকে জানান। অনেক সময় এমন হয় যে, একটি মূল্য দেখে আমরা পণ্য কিনব বলে মনস্থির করি, পরে দেখি সাথে আরও কিছু চার্জ যোগ হল। চার্জটা হয়ত খুবই সামান্য। কিন্তু বাড়তি সংখ্যাটা পরে জানার কারণে ক্রেতার কাছে খারাপ লাগে।

বাকিতে পণ্য দেবেন না
শুরু থেকেই করুন এই অভ্যাস। কোনভাবেই বাকিতে পণ্য দেবেন না। ক্রেতা আপনার যত ঘনিষ্ঠই হোক না কেন ব্যবসার ক্ষেত্রে তার সাথে ফরমাল সম্পর্ক বজায় রাখুন। টাকা হাতে পেয়ে তবেই পণ্য বুঝিয়ে দিন।

নিম্ন মন মানসিকতার ক্রেতা এড়িয়ে চলুন
কিছু ক্রেতা আছে যারা পণ্যের মান যতই ভাল হোক না কেন কখনোই মূল্যায়ণ করেন না। সবসময় দোষ-ত্রুটি খুঁজে বের করেন। মানুষকে সম্মান দিতে জানে না। বিক্রেতাদের সাথে যেমন তেমন ব্যবহার করা যায় মনে করে। এধরণের ক্রেতাকে সন্তুষ্ট করা খুবই কঠিন। এরা বরং আপনার ঝামেলা বাড়াবে। তাই যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন।

পণ্যের মান ভাল রাখুন
আপনার পণ্যের মান যেন কোনভাবেই খারাপ না হয় সেদিকে যত্নবান হোন। দশটি ভাল পণ্যের ভিড়ে একটি পণ্য খারাপ হলে সেই একটি পণ্যই আপনার সুনাম নষ্ট করে দিতে পারে। তাই কোনভাবেই মানের প্রশ্নে আপোষ করা যাবে না।

অভিজ্ঞতাকে দাম দিন
নতুন ব্যবসায় অনেকরকম ভুল-ত্রুটি হতে পারে। নিজের ভুলগুলোকে বোঝার চেষ্টা করুন। অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিন। কোনভাবেই ভুলগুলো যেন আর না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। হতাশ হওয়া যেমন ভুল, তেমনি ভুল অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী হওয়া। তাই নিরপেক্ষ বিচার করুন নিজের প্রতিটি কাজকে।

আরও কিছু টিপস-
* কখনোই ডেডলাইন মিস করবেন না
* বিশ্বস্ত লোক রাখুন
* বিভিন্ন উৎসবে ক্রেতার সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করে সুসম্পর্ক বজায় রাখুন
* প্রতিদিনের টার্গেট প্রতিদিন শেষ করুন
* কর্মীদের উৎসাহ দিতে মাঝে মাঝে মিটিং করুন
* নিজের কাজে অনন্য বৈশিষ্ট্য যোগ করার দিকে নজর দিন।






মন্তব্য চালু নেই