মেইন ম্যেনু

স্তন ক্যান্সারের জন্য দায়ী বক্ষবন্ধনী?

বর্তমানে কর্কট রোগ শরীরে বাসা বাঁধছে বিভিন্ন বয়সে। মেনোপোজের ঠিক পর পরই স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হন অনেক নারীই। কিন্তু এর কারণ কী? অনেকেরই ধারণা সঠিক বক্ষবন্ধনী না পরার দরুণই তাঁরা স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন। কিন্তু এই পুরনো ধারণাকে পুরোপুরি উড়িয়ে দিচ্ছেন আধুনিক গবেষকরা। আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটন স্কুল অফ পাবলিক অ্যাফেয়ার্সের একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় জানানো হয়েছে, স্তন ক্যান্সারের কারণ হিসেবে বক্ষবন্ধনীকে দায়ী করা ঠিক নয়। ৫৫-৭৪ বছর বয়সী মেনোপোজ হয়ে যাওয়া নারীদের উপর গবেষণা করে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন গবেষকরা। উন্নয়নশীল দেশের তুলনায় উন্নত দেশেই এই ধারণা এতদিন বদ্ধমূল ছিল। অনেকেই মনে করতেন অল্প বয়স থেকে খুব টাইট বক্ষবন্ধনী পরলে তা ভবিষ্যতে শরীরে ক্ষতি করবে। কিন্তু স্তন ক্যান্সারের কারণ সম্পূর্ণ আলাদা। যে সব মহিলা বেশিরভাগ সময়েই বক্ষবন্ধনী ব্যবহার করেন না তাঁদেরও স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার উদাহরণও পাওয়া গেছে এই সমীক্ষায়। বরং স্তন ক্যান্সার এড়াতে কয়েকটি সহজ পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা।

অবহেলা নয়
১) বুকে কোনােরকম মাংসপিন্ড হাত দিয়ে অনুভব করলে অবশ্যই চিকিত্সকের পরামর্শ নিন।
২) স্তন ক্যান্সারের কোনও নির্দিষ্ট বয়েস নেই।
৩) তবে মেনোপজের পরেই মহিলারা বেশি মাত্রায় এ রোগে আক্রান্ত হন।
৪) কোনও ভাবেই লজ্জা পেয়ে নিজেকে অবহেলা করবেন না।

বক্ষবন্ধনীর সুলুক সন্ধান
১) সঠিক মাপের বক্ষবন্ধনী ব্যবহার করুন।
২) নরম কাপড়ের বক্ষবন্ধনী ত্বকের জন্য আদর্শ।
৩) বক্ষবন্ধনী টাইট বা আলগা কেমনভাবে পড়লেন তার ওপর নির্ভর করে স্তন ক্যান্সার হয় না।

সূত্র: আনন্দবাজার






মন্তব্য চালু নেই