মেইন ম্যেনু

স্তন দিয়ে শিক্ষকের মুখ চেপে হত্যার চেষ্টায় আটক হলো ছাত্রী !

ফাতেমা খানম নামে ছাত্রী সংস্থার এক কেন্দ্রীয় নেত্রীর বিরুদ্ধে স্তন যুগল দিয়ে শিক্ষককে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। তার শিক্ষক এনামুল হক ঢাকা ভার্সিটির সাবেক ছাত্রলীগ সহসভাপতি।

জানা গেছে, ছাত্রী সংস্থার কর্মকাণ্ড, প্রেম ও আর্থিক লেনদেনের কারণে ফাতেমা ও এনামুলের সাথে দীর্ঘদিন যাবত শীতল সম্পর্ক চলছিল। বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানানোতে ফাতেমা এনামুলকে তার প্রাপ্য ২ লক্ষ টাকা ফেরত দিতে বলে। টাকা ফেরত না দেয়ায় ফাতেমা তাকে খুন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কি উপলক্ষে টাকা পায় তা জানা যায়নি।

সাতকানিয়া থানায় ফাতেমার বিরুদ্ধে স্তনকে অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ এনেছে এনামুল। অভিযোগে বলা হয়, মনোমালিন্যের কারণে হত্যা করার উদ্দেশ্যে ফাতেমা তাকে যৌনক্রিয়ার আহবান জানায়। এ সময় খেলার ছলে স্তন দিয়ে মুখ চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়।

ফাতেমা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, যৌনক্রিয়ার সময় এটা হঠাৎ অসাবধানতাবশত স্তন দুটি তার নাক মুখ বন্ধ করতে সহায়ক হয়। কিন্তু এনামুল পুলিশকে জানায়, স্তন ব্যবহার করে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এভাবে আর কয়েক সেকেন্ড থাকলে আমি মারা যেতাম।
এনামুল জানায়, মনোমালিন্যের কারণে ফাতেমা তাকে সহ্য করতে পারছিল না। এ থেকেই আমাকে খুন করার প্রবৃত্তি জাগে। তাই কোন প্রকারে তার স্তন থেকে মুক্ত হয়ে উলঙ্গ অবস্থায় ঘর থেকে বেরিয়ে এসে পালিয়ে বাঁচে।

এনামুল আরও জানায় ফাতেমা তাকে আনন্দঘন মৃত্যু দেয়ার কথা বলেছিল।

রমনা থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেন, আমরা তদন্ত করছি। পারিবারিক সূত্রে জানতে পেরেছি প্রেমঘটিত মনোমালিন্য ও টাকার লেনদেনের বিষয় ছিল। মামলার আইগত দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও তিনি জানান। এ ঘটনায় শাহবাগে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। moralnews24






মন্তব্য চালু নেই