মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর আহ্বানে সাড়া নেই, ফেরত যাচ্ছে জাগুয়ার

বাচ্চা জন্ম দেয়ার জন্যে দক্ষিণের একটি রাজ্যের চিড়িয়াখানা থেকে একটি জাগুয়ার ধার করে এনেছিল নয়াদিল্লির চিড়িয়াখানা। এক বছরের মাথায় তাকে আগের চিড়িয়াখানায় ফেরত পাঠানো হচ্ছে। কারণ একটাই- সঙ্গমে আগ্রহ নেই। অর্থাৎ যে উদ্দেশ্যে তাকে আনা হয়েছিল সে ব্যাপারে এটির কোনো ভ্রুক্ষেপই। সে খালি খায় আর ‍ঘুমায়।

কেরালার চিড়িয়াখানা থেকে বছর-খানেক আগে ধার করে আনা এই জাগুয়ারটির নাম সালমান। বয়স ১২। গত এক বছরে দেখা গেছে, দিল্লির চিড়িয়াখানায় যে কল্পনা নামের নারী জাগুয়ার আছে তার প্রতি সালমানের কোনো আগ্রহ নেই। চিড়িয়াখানার কর্মকর্তারা বলছেন, কল্পনার চাইতে খাবার-দাবারেরও প্রতিই বেশি আগ্রহ সালমানের।

একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘দেখা গেছে যে শারীরিক মিলনের জন্যে কল্পনা তাকে প্ররোচিত করার চেষ্টা করেছে এবং তাতে সাড়া না দিয়ে সালমান এক কোনায় অলস হয়ে শুয়ে থাকে।’

কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্য মতে, সালমানকে প্রতিদিন প্রায় ছয় কেজি মাংস খাওয়ানো হয়। সে খুবই অলস আর পেটুক। শুধু খেতে আর আরাম করতে পছন্দ করে। খাঁচার বাইরে বড় একটি জায়গায় ছেড়ে দেয়ার পরেও দেখা গেছে দৌড়াদৌড়ির কোনো ইচ্ছাই তার নেই। যৌন-ক্রিয়ার ব্যাপারেও নেই কোনো আগ্রহ।

তবে সালমানকে যারা পছন্দ করেন তারা বলছেন, দিল্লির চিড়িয়াখানায় আরো যে দুটো পুরুষ জাগুয়ার আছে তারাও কল্পনাকে কোনো বাচ্চা উপহার দিতে পারেনি। তাকে যে একটা জায়গা থেকে আরেকটা জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে সেই শোকই হয়তো এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি।






মন্তব্য চালু নেই