মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর ধর্ষককে খুন করে যৌনাঙ্গ ভক্ষণ!

আত্মার শান্তির জন্য স্ত্রীর ধর্ষককে খুন করেছেন স্বামী। এতেই থেমে থাকেননি হত্যাকারী এফেন্ডি, মৃত ওই ব্যক্তির যৌনাঙ্গ কেটে রান্না করে ভক্ষণও করলেন তিনি। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তার পেনুমাঙ্গান লামা গ্রামে।

এদিকে স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, খুনের প্রমাণ ধ্বংস করতে মৃতদেহকে জ্বালিয়ে দেয়া হয়। আর এতে এফেন্ডিকে সাহায্য করেন তার স্ত্রীও, যাকে ধর্ষণ করা হয়েছিল।

গ্রেপ্তারের পর এফেন্ডি পুলিশকে জানিয়েছেন, বিয়ের আগে রুডি বলে এক ব্যক্তির সঙ্গে সম্পর্ক ছিল স্ত্রীর। কিন্তু বিয়ে ঠিক হওয়ার পর রুডির সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তা মানতে না পেরে প্রাক্তন প্রেমিকাকে ধর্ষণ করে রুডি। বিয়ের পর স্বামী এফেন্ডিকে পুরো ঘটনা জানান স্ত্রী।

এরপরই রুডিকে খুনের পরিকল্পনা করতে থাকেন এফেন্ডি। স্ত্রীকে ব্যবহার করে রুডিকে গ্রামের এক বাড়িতে ডাকেন তিনি। সেখানেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করেন স্ত্রীর ধর্ষককে। খুনের পর রুডির মৃতদেহ পুড়িয়ে দিলেও, তার যৌনাঙ্গ কেটে বাড়িতে নিয়ে আসেন তিনি। পরে তা রান্না করে ভক্ষণ করেন।

এ বিষয়ে এফেন্ডি পুলিশকে জানান, ‘আত্মার শান্তির জন্যই এ কাজ করি।’ এফেন্ডির এই স্বীকারোক্তিতে রীতিমতো হতভম্ব পুলিশ কর্মকর্তারা।

এদিকে নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেও এফেন্ডির স্ত্রীকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।






মন্তব্য চালু নেই