মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর বদলি চেয়ে স্বামীর আবেদন, কী প্রতিক্রিয়া সুষমার?

আম আদমির সাহায্যে প্রায় সবসময়ই উপস্থিত কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ৷ টুইটেই বহু মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন৷ ভারতীয়দের পাসপোর্ট, ভিসা ও এম্ব্যাসি সংক্রান্ত বিষয়ে যে কেউ যেকোনো সমস্যায় ভরসা তিনিই৷ কিন্তু মন্ত্রীর ভদ্রতার সুযোগ নিয়ে অকারণই টুইট করতে শুরু করেছেন কিছু টুইটার ব্যবহারকারী।

রবিবার মার্কিন মুলুকের এক ভারতীয় নিজের স্ত্রী’র দ্রুত পাসপোর্টের জন্য টুইট করে সুষমার কাছে আবেদন জানান৷ রসিক সুষমাও কম যান না৷ টুইটে ব্যক্তিকে মজা করে মন্ত্রী লিখেছেন, ‘বনবাস দ্রুত শেষ হয়ে যাওয়া উচিত৷’ আর দম্পতির বনবাস দ্রুত শেষ করার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের টুইটার মারফত সজাগ করেন সুষমা।

কিন্তু সুষমা এবং প্রবাসী ভারতীয়র মধ্যে যখন টুইটের আদান-প্রদান হচ্ছে তখনই অপর এক ব্যক্তি নিজের জীবনের সমস্যা দূর করতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাহায্য চেয়ে বসলেন৷ স্মিত রাজ নামের এক ব্যক্তি টুইট করে মন্ত্রীকে জানান, তিনি এবং তাঁর স্ত্রী চাকরিসূত্রে একে অপরের থেকে অনেকটা দূরে থাকেন৷ তাঁর স্ত্রী রেল মন্ত্রণালয়ে কর্মরত বলেও জানান তিনি৷ টুইটে স্ত্রীর বদলির আবেদনও করেন তিনি৷ কিন্তু ব্যক্তির এই ধরনের টুইটে মনে হয় বেশ বিরক্তই হয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী৷ জানিয়েছেন, তাঁর দপ্তরে যদি স্মিত রাজ এবং তাঁর স্ত্রী কাজ করতেন, তবে এমন দাবি করার জন্য তাঁদের শাস্তিস্বরূপ সাসপেন্ড করে দিতেন তাঁদের৷ যদিও টুইটে বিরক্তি প্রকাশ করার পরও মন্ত্রী রেল মন্ত্রণালয়কে টুইটে ট্যাগ করেছেন এবং বিষয়টি সম্পর্কে আলোকপাত করেছেন। -সংবাদ প্রতিদিন।






মন্তব্য চালু নেই