মেইন ম্যেনু

স্ত্রী অনেক বেশী শপিং করেন? স্বামীরা জেনে নিন কী করবেন

নারীরা অনেক বেশী শপিং প্রিয় এটি নতুন কোনো কথা নয়। সময় সুযোগ পেলেই শপিংয়ে চলে যান বেশীরভাগ নারীই। কিছু কেন হোক বা না কেনাই হোক না কেন শপিং মলে ঘুরতেও নারীরা বেশ পছন্দ করেন। যারা নিজেরা উপার্জন করে তা খরচ করেন তাদের জন্য নয়, যেসকল স্ত্রীরা শুধুমাত্র স্বামীর উপার্জিত অর্থেই মনের মাধুরী মিশিয়ে শপিং করেন তাদের স্বামী বেচারারা একটু বিপদেই পড়ে যান। যদি উপার্জন অনেক মোটা অংকের হয় তাহলে সমস্যা নয়, সমস্যা হচ্ছে যারা সীমিত পরিমাণে অর্থ উপার্জন করেন। প্রিয়তমা স্ত্রীকে হয়তো কিছু বলতে পারছেন না বা বললে তিনি রাগ করছেন। এখানে বিপদ উভয় দিক দিয়েই। তাই একটু কৌশল খাটিয়ে নিন। জেনে নিন কী করতে পারেন এমন অবস্থায় পড়লে।

১) স্ত্রীকে সরাসরি কিছু বলতে যাবেন না। একটু ঘুরিয়ে বলার চেষ্টা করুন। আপনার উপার্জনের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য তাকে মানসিক ভাবে ধীরে ধীরে প্রস্তুত করে নিন। হাতে একটু কম করে টাকা দিন। প্রয়োজনে নিজের উপার্জনের পরিমাণ আরও কমিয়ে বলুন। এতে একটু হলেও শপিংয়ের পরিমাণ কমবে।

২) সঙ্গীকে পুরো মাসের খরচটা বুঝিয়ে দিন। বলুন সংসার তার খরচ তাকেই বুঝে করতে হবে। মাসের বাজেট তার হাতে পৌঁছুলে তিনি ইচ্ছে থাকলেও বেশী শপিং করতে পারবেন না। কারণ তিনি মনে মনে ভাববেন তাকেই মাস চলতে হবে।

৩) সঙ্গীকে একটু বুদ্ধি খাটিয়ে বলুন আপনি খুব রোম্যান্টিক কোনো ছুটির দিন কাটাতে চান তাই আপনি অর্থ সঞ্চয় করতে শুরু করেছেন। এতে করে সঙ্গীর মনেও এই ধরণের অর্থ সঞ্চয়ের বিষয়টি আসবে তা সেটি ভালো একটি ছুটির দিন কাটানোর উদ্দেশেই হোক না কেন। তিনি শপিং কমিয়ে অর্থ সঞ্চয় করতে শুরু করে দেবেন।

৪) নিজেও সঙ্গিনীর সাথে শপিংয়ে চলে যান। তিনি নিজে যেভাবে শপিং করতেন একেবারে লাগাম ছাড়া, আপনি সাথে থাকলে সেটাতে কিছুটা হলেও লাগাম এসে যাবে। বিশেষ করে দুটি দোকান ঘুরেই আপনি যখন বাসায় চলে যেতে চাইবেন তখন একগাদা শপিং করার ইচ্ছে তার এমনিতেই উবে যাবে।

৫) শপিং বন্ধ করার অন্যতম উপায় হচ্ছে সঙ্গীর মন ঘুরিয়ে দেয়া। তাকে অন্য শত কাজে ব্যস্ত ফেলুন তাতে তিনি শপিং করার নেশা একেবারেই ভুলে যাবেন। স্ত্রীকে অন্য যে কোনো কাজে লাগিয়ে দিন। তবে এমন যেন না হয় তিনি বুঝতে পারেন। প্রশংসা করেই তাকে দিয়ে শপিংয়ের বিষয়টি ভুলিয়ে দিতে পারেন।

সূত্র: bollywoodshaadis






মন্তব্য চালু নেই