মেইন ম্যেনু

স্ত্রী-চাচিকে কুপিয়ে হত্যায় ফাঁসির আদেশ

পিরোজপুর জেলার পাড়েরহাটের বাদুড়ায় স্ত্রী ও চাচিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী গৌতম রায়কে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় আসামির উপস্থিতিতে এ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করেন জেলা ও দায়রা জজ মো. গোলাম কিবরিয়া।

দণ্ডপ্রাপ্ত গৌতম পিরোজপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ বাদুরা গ্রামের হিমাংশু রায়ের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বাদুরা বাজার থেকে মাছ কিনে বাড়িতে আসে গৌতম। পরে তার স্ত্রী সীমাকে (৩০) তা কাটতে বলে। এ সময় হাতের কাজ শেষ করে মাছ কাটবে বলে জানায় সীমা। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এর এক পর্যায়ে গৌতম দা দিয়ে গলা কেটে স্ত্রীকে হত্যা করে। এ ঘটনা দেখে গৌতমের চাচার স্ত্রী শেফালী ও চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রী শিউলী পাশের ঘরে বসে চিৎকার করলে গৌতম দৌড়ে গিয়ে তাদের এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ সময় প্রতিবেশীরা শেফালী ও শিউলীকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শেফালীকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় পিরোজপুর থানার তদন্ত কর্মকর্তা পরের বছরের ১ মে আদালতে গৌতমের বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন। গ্রেপ্তার হওয়ার পর গৌতম ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে অপরাধ স্বীকার করে। এরই পরিপেক্ষিতে আজ এ মামলার রায় ঘোষণা করা হয়।

রাষ্ট্র পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন পিপি অ্যাডভোকেট খান মো. আলাউদ্দিন।






মন্তব্য চালু নেই