মেইন ম্যেনু

স্ত্রী বললেন, মতিন সমকামী ছিলেন

অরল্যান্ডোর সমকামী নাইট ক্লাবে হত্যাযজ্ঞের হোতা ওমর মতিনের সাবেক স্ত্রী সিতোরা ইউসুফি ব্রাজিলের এক টিভিকে বলেছেন সাবেক স্বামী সমকামী ছিলেন বলে তিনি জোর সন্দেহ করতেন।

এসবিটি ব্রাজিল নামে ঐ টিভিতে দেওয়া তার সাক্ষাৎকার উদ্ধৃত করে নিউইয়র্ক পোস্ট লিখেছে তার এই সন্দেহের কথা মিডিয়াকে না বলার পরামর্শ দিয়েছিলো তদন্ত সংস্থা এফবিআই। পর্তুগিজ ভাষায় তার পক্ষে এই সাক্ষাৎকারে কথা বলেন সিতোরা ইউসুফির বর্তমান প্রেমিক মার্কো দিয়াজ।

মিস ইউসুফি এমন কথাও বলেছেন, মতিনের এই সমকামী চরিত্রের কথা তার বাবাও জানতেন। তার সামনেই একবার বাবা ছেলেকে সমকামী বলে ভর্ৎসনা করেছিলেন বলে মিস ইউসুফি দাবি করেছেন।

ওমর মতিনের যৌন পরিচয় নিয়ে যে সন্দেহ তৈরি হয়েছে, সাবেক স্ত্রীর এই বক্তব্য তা নিঃসন্দেহে আরো শক্ত করবে।

ওমর মতিনের সাবেক সহপাঠীকে উদ্ধৃত করে ফ্লোরিডার পাম বিচ পোস্ট লিখছে ২০০৬ সালে ইন্ডিয়ান রিভার কম্যুনিটি কলেজে পড়ার সময় প্রায়ই তারা একসাথে সমকামী বারগুলোতে যেতেন। ঐ সহপাঠী বলেন, মতিন তাকে একদিন প্রেমের প্রস্তাবও দিয়েছিলো। ঐ সহপাঠী বলেছেন তার সন্দেহ ছিল ভেতরে ভেতরে মতিন একজন সমকামী ছিলো।

পালস নামে অরল্যান্ডোর সমকামী নাইট ক্লাবটি হামলার শিকার হয়েছে, তার একজন গায়ক স্থানীয় একটি পত্রিকাকে বলেছেন, ওমর মতিন বছর তিনেক ধরে ঐ ক্লাবে যেতেন। ক্রিস ক্যালেন নামে ঐ গায়কের স্বামী বলছেন তিনি একদিন দেখেছেন মাতলামির কারণে রক্ষীরা ওমর মতিনকে ক্লাব থেকে বের করে দিচ্ছে। ঐ নাইট ক্লাবের আরো অন্তত চারজন বহুবার মতিনকে সেখানে দেখেছেন বলে জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি এমএসএনবিসি টিভিকে বলেছেন গ্রিনডিআর, অ্যাডাম-ফর‍-অ্যাডাম সহ বেশ কয়টি সমকামী ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করতেন ওমর মতিন। ঐ ব্যক্তি বলেন, তার দুই বন্ধুকে মতিন প্রেমের প্রস্তাব পাঠিয়েছিলো। সূত্র- বিবিসি বাংলা।






মন্তব্য চালু নেই