মেইন ম্যেনু

স্পোর্টিংয়ের হৃদয় ভেঙে রিয়ালের নাটকীয় জয়

লা লিগায় এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচে শতভাগ জয়। সর্বশেষ ম্যাচে তো ওসাসুনাকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সেই রিয়াল মাদ্রিদই কাল চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্পোর্টিং লিসবনের বিপক্ষে গোলের জন্য হাঁসফাঁস করছিল।

আর স্পোর্টিং লিসবন ৮৮ মিনিট পর্যন্তও এগিয়ে থেকে দারুণ এক জয়েরই স্বপ্ন দেখছিল। কিন্তু তাদেরই প্রাক্তন খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো আর আলভারো মোরাতার শেষ মুহূর্তের দুটি গোলে হৃদয় ভেঙেছে পর্তুগিজ ক্লাবটির সমর্থকদের।

২-১ গোলের নাটকীয় জয় দিয়ে ইউরোপ সেরার মিশন শুরু করেছে গতবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ।

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের শুরুতেই রিয়ালকে কাঁপিয়ে দিয়েছিল স্পোর্টিং। দ্বিতীয় মিনিটে লিড নিতে যাচ্ছিল অতিথিরা। কিন্তু ব্রুনো চেজারের প্রচেষ্টা অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি বলে এ যাত্রায় বেঁচে যায় স্বাগতিকরা।

নবম মিনিটে আরেকটি সুযোগ এসেছিল স্পোর্টিংয়ের সামনে। এবার গেলসন মার্টিনেজের প্রচেষ্টা রুখে দেন রিয়াল গোলরক্ষক।

রিয়াল প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল ২৭ মিনিটে। রিয়ালের হয়ে ৩৫০তম ম্যাচ খেলতে নামা রোনালদোর শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান স্পোর্টিং গোলরক্ষক।

প্রথমার্ধে তাই গোলও হয়নি। তবে দ্বিতীয়ার্ধে শুরুতেই (৪৭ মিনিট) রিয়াল সমর্থকদের হতাশায় ডুবিয়ে স্পোর্টিংকে এগিয়ে দেন চেজার। তার শট খুঁজে নেয় স্বাগতিকদের জাল।

চেজারের সেই গোলেই জয়ের স্বপ্ন দেখছিল স্পোর্টিং। কিন্তু ৮৮ মিনিটে রোনালদোর ফ্রিক-কিক থেকে করা গোলে ম্যাচে ফেরে রিয়াল। আর যোগ করা সময়ের একেবারে শেষ মিনিটে মোরাতার হেডে হৃদয় ভাঙে অতিথিদের।

এই গ্রুপের অন্য ম্যাচে লেগিয়া ওয়ারশকে তাদের মাঠেই ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে জার্মান ক্লাব বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।






মন্তব্য চালু নেই