মেইন ম্যেনু

স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় জামায়াত বড় ভুল করেছিল

অতীত অপরাধের জন্য বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে বলেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল দিগন্ত টিভির সপ্তম বর্ষপূর্তিতে চ্যানেলটির সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত এক প্রতিবাদী সংহতি সম্মিলনে তিনি এ কথা বলেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় জামায়াত বড় ভুল করেছিল। তাদের পূর্বপুরুষেরা সেদিন অন্যায় করেছিল। কিন্তু গোলাম আজম, মুজাহিদদের অপরাধের জন্য বর্তমান জামায়াতে ইসলামী অপরাধী নয়।’

জাফরুল্লাহ বলেন, ‘বিএনপি–জামায়াতকে নতুন করে চিন্তা করে জনগণের কাতারে দাঁড়াতে হবে। এ কালো মেঘকে ঝড়ে পরিণত করতে হলে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ছাড়া হবে না।’

বিচারপতি আবদুর রউফ বলেন, ‘বাংলাদেশের সমস্যা মাত্র একটা। সেটা হচ্ছে শৃঙ্খলাবোধের অভাব। বর্তমানে পার্লামেন্টের কাজ কোর্ট করছে, কোর্টের কাজ করছে পার্লামেন্ট। রাজনীতিবিদরা ব্যবসা করছে আর রাজনীতির কাজ করছে আরেকজন।’

কোনো রাজনৈতিক নেতা মনেপ্রাণে সাধারণ মানুষের হাতে ক্ষমতা দিতে চান না মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘সারাদেশে দুর্নীতিকে জাতীয়করণ করা হয়েছে। এখন পয়সা ছাড়া কোনো কাজ হয় না।’

আওয়ামী লীগ নেতা শেখ ফজলুল করিম সেলিম যে বক্তব্যটি তুলে ধরেছেন সেটা আমলে নেয়া উচিৎ বলে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে সাবেক এ প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘আপনার উপদেষ্টা পরিষদে যাদের নিয়োগ দিয়েছেন তাদের হয়তো আপনি চিনেন না, আমরা তাদের ভালোভাবে চিনি।’

এ সময় বক্তারা দিগন্ত টিভি খুলে দিয়ে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

সম্মিলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, কবি ফরহাদ মজহার, দৈনিক নয়া দিগন্তের সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ ইব্রাহীম (বীর প্রতীক) প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই