মেইন ম্যেনু

স্বামীর হয়রানি, গলার রগ চিরে ২ মেয়েকে খুন করল মা!

স্বামীর অত্যাচারে দুই মেয়েকে নিয়ে প্রায়ই আতঙ্কে ভুগতেন মধ্যবয়সি গৃহবধূ সরোজা। শেষমেশ, নিজের হাতেই মেয়েদের নৃশংসভাবে খুন করেন তিনি। ভেবেছিলেন এতে অশান্তি হয়তো কমবে। আপাতত গারদের পিছনে সরোজা।

এক মেয়েকে বাথরুমে নিয়ে গিয়ে ভাঙা গ্লাসের টুকরো দিয়ে গলার নলি চিরে খুন করেন মা। আর এক শিশুকন্যাকে শোয়ার ঘরে একই কায়দায় খুন করেন তিনি। মর্মান্তিক এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে সেকেন্দ্রাবাদের তুকারাম গেটের টিচার্স কলোনিতে। খুনের পরে আপার ট্যাঙ্ক-বান্ড রোডের ধারে হোসেন সাগরে গিয়ে রক্তমাখা হাত ধুয়েও আসেন মা। ফেরার পথে কাছের বন্ধুদের এসএমএস করে খুনের কথা জানান।

জানা গিয়েছে, প্রায়ই স্বামী বিনয় দুই মেয়ে ৭ বছরের তনিষ্কা এবং ৩ বছরের তনভির সঙ্গে সমানে খারাপ করত। এই নিয়ে স্বামীর উপরে রেগে থাকতেন স্ত্রী সরোজা ওরফে রাজিনি। শাশুড়ি ও ননদ একই সংসারে থাকলেও এই নিয়ে নাকি বিনয়কে কোনও কথা বলতেন না।

শেষমেশ সরোজা বুধবার তনিষ্কাকে বাথরুমের মধ্যে নলি কেটে খুন করেন। এরপর তনভিকেও খুন করেন তিনি। রাতে বাড়ি ফিরে দুই মেয়ের দেহ দেখে পুলিশে খবর দেন বিনয়। তাঁর মা ও বোন পাশের ঘরে ছিলেন বলে এই হত্যাকাণ্ড টের পাননি। পুলিশ সরোজাকে গ্রেফতার করেছে।






মন্তব্য চালু নেই