মেইন ম্যেনু

স্বামী মারা যাওয়ার পর নারীদের মানসিক চাপ কমে!

বিয়ে বহু আগে থেকেই পারিবারিক শান্তি ও মানসিক স্বস্তি তৈরি করে বলে ধারণা মানুষের। যদিও সাম্প্রতিক এক গবেষণায় কিছুটা ভিন্ন ফলাফল পাওয়া গেছে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে টেলিগ্রাফ।

নতুন এক গবেষণায় জানা গেছে, স্বামী মারা যাওয়ার পর বিধবা নারীদের মানসিক চাপ অনেকাংশে কমে যায়। এমনকি স্বামী বেঁচে থাকতেও তাদের যে মানসিক চাপ থাকে তা স্বামীর মৃত্যুর পর হ্রাস পায়।

নতুন এ গবেষণাটি করেছেন ইটালির ইউনিভার্সিটি অব প্যাডোভার গবেষকরা। তারা জানিয়েছেন, স্ত্রীর মৃত্যুর পর পুরুষেরা নানা সমস্যায় ভোগেন। তবে নারীদের ক্ষেত্রে ব্যাপারটি ভিন্ন। কারণ স্বামীর মৃত্যুর পর নারীদের সেভাবে সমস্যা হয় না। তার বদলে কিছুটা মানসিক স্বস্তিতেই থাকেন তারা। এর কারণ হিসেবে গবেষকরা বলছেন, পুরুষেরা অধিক মাত্রায় স্ত্রীর ওপর নির্ভরশীল হওয়ায় মূলত এমন ঘটনা ঘটতে পারে।

এ বিষয়ে গবেষকদের প্রধান ড. ক্যাটেরিনা ট্রেভিসান বলেন, পুরুষের জন্য একজন স্ত্রীর উপস্থিতি কিছু সুবিধা দিতে পারে। এসব সুবিধার মধ্যে রয়েছে বাড়ি ব্যবস্থাপনা ও স্বাস্থ্যগত বিষয়। অন্যদিকে নারীরা মানসিক চাপ ও হতাশায় ভুগে থাকেন।

পুরুষের তুলনায় নারীর জীবনকাল কিছুটা বেশি হয়ে থাকে। এ কারণে বিবাহিত নারীদের শুশ্রুষাকারীর ভূমিকা পালন করতে হয়, যা তাদের মানসিক চাপ বৃদ্ধি করে বলে মনে করছেন গবেষকরা।

ড. ট্রেভিসান জানান, এ বিষয়গুলো অবিবাহিত নারীর তুলনায় ঝুঁকি কমায়। এ গবেষণায় আরও দেখা গেছে, একাকী নারীও তুলনামূলকভাবে স্বস্তিতে থাকেন। এছাড়া তাদের চাকরির সন্তুষ্টি ও কর্মক্ষেত্রে কাজের মাত্রাও ভালো হয়। এছাড়া তারা পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে ভালোভাবে যোগাযোগ রাখতে সক্ষমত হন।

এ গবেষণায় ৭৩৩ জন ইটালিয়ান পুরুষ ও ১,১৫৪ জন নারীকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। প্রায় সাড়ে চার বছর ধরে তাদের ওপর পর্যবেক্ষণ করে এ ফলাফল লিপিবদ্ধ করেন গবেষকরা। গবেষণার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে জার্নাল অব ওম্যানস হেলথ-এ।






মন্তব্য চালু নেই