মেইন ম্যেনু

স্বামী মোশাররফ করিমের অভিনয়ে মুগ্ধ স্ত্রী জুঁই

জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিমের স্ত্রী জুঁই করিম একসময় মুগ্ধ হতেন ফেরদৌসী মজুমদার, নাজমা আনোয়ার, গোলাম মুস্তাফা, হুমায়ুন ফরীদির অভিনয় দেখে।

তাঁদের মতো অভিনয় করার স্বপ্ন দেখতেন। তবে এ সময়ের আরেকজন অভিনেতার অভিনয় দারুণ উপভোগ করেন তিনি।

কার অভিনয়? জুঁই একটু হাসলেন। একটু অভিমানের সুরেই বললেন, তাঁর জন্যই নাকি খুব বেশি এগোতে পারছেন না। তিনি মোশাররফ করিম, জুঁইয়ের স্বামী। এরই মধ্যে তাঁদের দাম্পত্য জীবনের ১১ বছর কেটেছে।

জুঁই নিজেই এখন ব্যস্ত অভিনয়শিল্পী। এক ঘণ্টা আর ধারাবাহিক মিলিয়ে অভিনয় করেছেন অর্ধশতাধিক নাটকে। বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে এখন প্রচারিত হচ্ছে তাঁর কয়েকটি ধারাবহিক। এখন খুব ব্যস্ত ঈদের নাটক নিয়ে।

অভিনয় করছেন মারুফ মিঠুর ঈদের নাটক সেই রকম ঘুষ খোর-এ। সাগর জাহানের সেকান্দর বক্স এখন রাঙ্গামাটিতে নাটকের শুটিং শেষ হয়েছে সম্প্রতি। মাসুদ সেজানের ধারাবাহিক নাটক চলিতেছে সার্কাস-এর শুটিং চলছে। সম্প্রতি উত্তরায় এই নাটকের শুটিংয়ের ফাঁকে কথা হয় জুঁইয়ের সঙ্গে। ২৬ জুন আবারও কথা হয় বনশ্রীতে তাঁর বাসায়।

নিজের অভিনয় জীবনের শুরুর গল্প জুঁই বললেন এভাবে, ‘২০০১ সাল। আমি তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী। পড়াশোনার ফাঁকে অফুরন্ত সময়। ইচ্ছে হলো, মঞ্চনাটকে কাজ করব। নাটক আর গানের প্রতি আমার ঝোঁক ছিল প্রবল। কিন্তু বাবার ইচ্ছে, সবকিছুর আগে পড়াশোনা। সংগীতচর্চার ব্যাপারে তাঁর তেমন আপত্তি ছিল না। ভর্তি হই হিন্দোল সংগীত একাডেমীতে। নাটক আর করা হলো না।’

গান থেকে অভিনয়ে কীভাবে যুক্ত হলেন জুঁই? জানালেন, ২০০৫ সাল। স্নাতকোত্তর শেষ বর্ষের ছাত্রী জুঁই। থিসিস লিখছেন। বিষয় ‘টেলিভিশন নাটকে নারী অভিনয় শিল্পীদের অবস্থান’। তাই তাঁকে ছুটতে হয়েছে দেশের নারী অভিনয়শিল্পীদের কাছে। কখনো তাঁদের বাসায় আবার, কখনো শুটিং স্পটে। নাটকের বিভিন্ন চরিত্র নিয়ে চলে তাঁর নিবিড় গবেষণা। চরিত্রগুলোর সঙ্গে মেলামেশা করতে গিয়ে মনের অজান্তে অভিনয়ের অন্য রকম স্বাদ পান জুঁই। নিজের মনে বাসা বাঁধে অভিনয়শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন। ধীরে ধীরে গড়ে ওঠে কঠিন আত্মবিশ্বাস।

সেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে ২০১০ সালের অক্টোবরে জুঁই প্রথম অভিনয় করেন সিমিলার টু নাটকে। তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো গেট, টেষ্ট, সরল গল্প, সেকান্দর বক্স, রেড সিগন্যাল, সেই রকম পান খোর, ঝুলন্ত বাবু, দুই টাকার বাহাদুরি, প্রপস, তিনি আসবেন, রাস্কেল। এসব নাটকে তাঁর অভিনয় প্রশংসিত হয়।

এরই মধ্যে দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন জুঁই। প্রথমটি মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর টেলিভিশন আর পরেরটি তৌকীর আহমেদের অজ্ঞাতনামা।অভিনয় নিয়ে অনেক দূর যেতে চান জুঁই। নতুন নতুন কাজের মধ্য দিয়ে নিজেকে সমৃদ্ধ করছেন। অবসর পেলেই পড়েন স্তানিস্লাভস্কির মেথড অব অ্যাকটিং বইটি।

সংসারের সব ধকল সামলে অভিনয়? কীভাবে সম্ভব? হাসতে হাসতে জুঁই বললেন, ‘যিনি ভাত রাঁধেন, তিনি চুলও বাঁধেন। সবদিক থেকে সামলে নেই।’






মন্তব্য চালু নেই