মেইন ম্যেনু

স্বাস্থ্য উপকারিতায় ’আমলকী’

ছোট্ট সবুজ এক প্রকার ভেষজ ফল আমলকী। সাধারনত আগস্ট থেকে নভেম্বর মাস পর্যন্ত এই ফল পাওয়া যায়। ঝিরিঝিরি তেতুল পাতার মতো সবুজ পাতার ফাঁকে লুকোচুরি খেলে অপেক্ষাকৃত হালকা সবুজ গোলাকৃতির আমলকী। সংস্কৃত ভাষায় এই ফলকে আমালিকা বলা হয়। কষ স্বাদের ফলটি খাওয়ার পর মুখে পানি নিলে খুবই মিষ্টি লাগে। উপকারিতা সম্পর্কে না জানলেও অনেকে এই স্বাদের কারণে আমলকী খেয়ে থাকেন। তবে এর আচার খুবই সুস্বাদু। ছোট্ট এই ফলে রয়েছে অগণিত স্বাস্থ্য উপকারী গুণ। আমাদের সুস্থতা অর্জনে আমলকী পালন করতে পারে বড় ভূমিকা। আজ জেনে নেয়া যাক, আমলকীর দশ স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে।

– আমলকীতে থাকা প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। এছাড়া ভিটামিন সি বিভিন্ন ক্ষত দ্রুত সারাতেও ভূমিকা রাখে।

– আমলকীর খাদ্যআঁশ হজমে সাহায্য করে। পেটে গ্যাসের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে এর জুড়ি নেই।

– আমলকী দেহের পানিশূন্যতা দূর করে অতিসহজে। সুস্থতা নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ লিভার ভালো রাখতে বেশ পারদর্শী।

– আমলকী ব্লাড সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

– আমলকী হার্ট সুস্থ রাখে, ফুসফুসকে শক্তিশালী করে তোলে।

– আমলকী ত্বক, চুল ও চোখ ভালো রাখার জন্য খুব উপকারী।

– আমলকী পুরুষের উৎপাদন ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে ।

– শরীরের অতিরিক্ত টক্সিন বের করে দিয়ে শরীরকে নানা রোগ থেকে রক্ষা করে।

– আমলকী শরীরের লোহিত রক্ত কনিকার সংখ্যা বাড়িয়ে তুলে দাঁত ও নখ ভালো রাখে।

– আমলকীর জুসে সামান জয়িত্রী গুঁড়া মিশিয়ে খেলে অনিদ্রা সমস্যা দূর হয়।






মন্তব্য চালু নেই