মেইন ম্যেনু

সড়কে মৃত্যুর মিছিল ॥ ঈদে বাড়ি ফেরার পথে নিহত ১১

পরিবারের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে বাড়ি ফেরার পথে চার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে সুনামগঞ্জে চারজন, চট্টগ্রামে তিনজন, বরগুনায় তিনজন ও টাঙ্গাইলে দুইজন নিহত হয়েছেন।

আমাদের সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, বুধবার সকালে সুনামগঞ্জে কভার্ড ভ্যান ও অটোরকিশার মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন।

জেলার পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ জানান, বুধবার সকাল ৮টার দিকে ছাতক-সিলেট সড়কের কালারুকা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নামপরিচয় জানাতে পারেননি তিনি।

তিনি আরও জানান, তামাবিলগামী কভার্ড ভ্যানটির সঙ্গে ছাতকগামী অটোরিকশাটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশার চার আরোহী ঘটনাস্থলেই মারা যান।

বরগুনা: বরগুনার আমতলীতে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত এবং একজন আহত হয়েছেন।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আমতলী-পটুয়াখালী মহাসড়কের চুনাখালী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উজ্জ্বল কুমার ও মনির। তাৎক্ষণিকভাবে আহতের নামপরিচয় জানা যায়নি।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

চট্টগ্রাম নগরীর দেওয়ানহাট এলাকায় সকাল ৯টার দিকে বাস-টেম্পুর মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন।

নিহতদের মধ্যে নাঈম নামে একজনের নাম জানা গেছে। তিনি নোয়াখালীর রামগতি থানার আজিজ বেপারির ছেলে। নিহত অপর একজনের পরিচয় জানা যায়নি।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক পঙ্কজ বড়ুয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এছাড়া বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে টাঙ্গাইলের বাইপাসের কান্দিলায় বাসের ধাক্কায় দুই লেগুনার যাত্রী নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন।

নিহতরা হলেন- টাঙ্গাইলের সুদেব ঘটক ও বগুড়ার মোকামতলার বুলবুল হোসেন।






মন্তব্য চালু নেই