মেইন ম্যেনু

‘সড়ক দূর্ঘটনা রোধে সম্মিলিতভাবে সচেতনতা সৃষ্টি’র আহবান’

আব্দুর রহমান, সাতক্ষীরা : ‘চালালে গাড়ী সাবধানে, বাঁচবে সবাই প্রাণে’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে সাতক্ষীরায় সড়ক নিরাপত্তা ও গণসচেতনতা বৃদ্ধিমূলক র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সাতক্ষীরা সার্কেলের আয়োজনে ও জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় একটি বর্নাঢ্য র‌্যালি বের হয়।

র‌্যালিটি কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল প্রদক্ষিণসহ শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সড়ক দূর্ঘটনা হ্রাসকল্পে ও সড়ক নিরাপত্তা বৃদ্ধিমূলক আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

আলোচনা সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) অরুন কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন।

এসময় তিনি বলেন, ‘জনসচেতনতায় পারে সড়ক দূর্ঘটনা রোধ করতে। এজন্য সকলকে সম্মিলিতভাবে সড়ক দূর্ঘটনা রোধে সচেতনতা সৃষ্টি এবং সকল নিয়মের অনুশাসন মেনে চলার আহবান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সাতক্ষীরা সার্কেলের প্রকৌশলী তানভীর আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ডিডিএলজি’র উপ-পরিচালক মঈনুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডাঃ উৎপল কুমার দেবনাথ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোদদাছছের হোসেন, বিআরটিএ খুলনা’র উপ-পরিচালক মোঃ জিয়াউর রহমান, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ, সাতক্ষীরা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনা কমানোর জন্য -ওভারটেকিং প্রবণতা বন্ধ করতে হবে, ড্রাইভার গাড়ি চালনার সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবে না, ট্রাফিক বা হাইওয়ের পুলিশ যেন যথাযথ দায়িত্ব পালন করে, গাড়ির ফিটনেস যেন ঠিক থাকে তা লক্ষ্য রাখতে হবে, বাসের ছাদে মাল বা লোক ওঠানো যাবে না এবং প্রতি দশ কিলোমিটার অন্তর স্পিডব্রেকার দেয়া উচিত।’

র‌্যালি চলাকালীন কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় ড্রাইভারদের হাতে ‘সেবা কার্যক্রম নির্দেশিকা’ শীর্ষক লিফলেট বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মোঃ মহিউদ্দিনসহ অতিথিবৃন্দ।






মন্তব্য চালু নেই