মেইন ম্যেনু

হকার-ব্যবসায়ী সমঝোতা, খুলেছে ঢাকা ট্রেড সেন্টার

হকার ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে সমঝোতা হওয়ায় খুলে দেয়া হয়েছে ঢাকা ট্রেড সেন্টার। ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হকারদের ক্ষতিপূরণ দিতে রাজি হওয়ায় এ সমঝোতা হয়। সংঘর্ষের জের ধরে দুই দিন বন্ধ ছিলো ঢাকা ট্রেড সেন্টার।

ঢাকা ট্রেড সেন্টারের বারান্দা ও ফুটপাতের সামনে দোকান বসানো নিয়ে শুক্রবার তিন ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ হয়। এতে আহত হয় মতিঝিল জোনের উপপুলিশ কমিশনারসহ অর্ধশত ব্যক্তি।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে টিয়ার গ্যাস শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করতে হয়। ব্যবহার করা হয় জলকামান ও রায়টকার।

সংঘর্ষ চলাকালে গুলিস্তান, ঢাকা ট্রেড সেন্টার ও আশপাশের এলাকা থেকে দেড় শতাধিক হকার, ব্যবসায়ী ও দোকান শ্রমিককে আটক করা হয়। বৃহস্পতিবারও একই কারণে হকার ও ট্রেড সেন্টারের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিলো।

হকারদের অভিযোগ, ঢাকা ট্রেড সেন্টারের ভেতরে পার্কিংয়ের জায়গায় দোকান করে ভাড়া দেয়া হয়েছে। ফলে মার্কেটের ভেতর গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা নেই। ক্রেতাদের আনা গাড়ি রাস্তায় রেখে দেয়া হয়। যে কারণে সেখানে যানজট দেখা দেয়। ফুটপাতের হকারদের কারণে যানজট তৈরি হয় না।

মার্কেটের ব্যবসায়ী হাবীবুর রহমান বলেন, ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের কারণে দোকানে বেচাবিক্রি কম হয়। যানজটের কারণে ক্রেতারা মার্কেটে যেতে চান না। এ কারণে তারা ফুটপাত থেকে হকার উচ্ছেদের চেষ্টা করেন। তাছাড়া বিষয়টি মেয়র ও পুলিশ কমিশনারকেও অবহিত করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই