মেইন ম্যেনু

হঠাৎ বাবাকে কাছে পেয়ে ফেসবুকে সাকিবের স্ট্যাটাস!

সন্তান যতো বড় হয়, বাবা- মার সাথে ততোই যেনো বাড়তে থাকে দূরত্ব। জীবন ও জীবিকার তাগিদে ছুটে চলার চিরন্তন প্রকৃতিই সৃষ্টি করে দেয় এমন পরিস্থিতি। পেশাদার ক্রিকেটারদের জীবন তো আরো কঠিন। এই ঢাকা তো ওই সিডনি, এই লন্ডন তো ওই চিটাগং; এভাবেই ছুটতে হয় তাদের।

বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের জীবনটাও ব্যতিক্রম নয়। বর্তমানে তিনি অবস্থান করছেন খুলনায়। সেখানেই চলছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সামনে রেখে বাংলাদেশের প্রস্তুতি। প্রস্তুতি ক্যাম্পে শুক্রবার হঠাৎ করেই হাজির হয়েছিলের সাকিবের বাবা। হঠাৎ বাবাকে কাছে পেয়ে আবেগি সাকিব আবেগে মোড়া এক স্ট্যাটাস দিয়েছেন ফেসবুকে।

সাকিবের বাবা খন্দকার মাশুরুর রেজা এক সময় ছিলেন ফুটবলার। চেয়েছিলেন ছেলেও হবে ফুটবলের তারা। কিন্তু বদলে দিয়েছে সাকিবের গতিপথ। ফুটবলার নন, তিনি হয়েছেন পৃথিবীর সেরা ক্রিকেটারদের একজন। এ নিয়ে নিশ্চয় গর্বই করেন খন্দকার রেজা।

শুক্রবার বাবার সাথে হঠাৎ দেখা হওয়ার পর বাবার সঙ্গে তোলা ছবিসহ ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন সাকিব। দেশের সেরা ক্রিকেটার সেখানে লেখেন, ‘বাবার সাথে হঠাৎই দেখা হয়ে গেলো। বাবাই আমার জীবনের একমাত্র মানুষ, যিনি আমাকে বড় হওয়ার পথ দেখিয়েছেন।’

দেশ বিদেশ ছুটে বেড়ানোর পেশায় বাবাকে খুব একটা কাছে পাওয়া হয় না সাকিবের। স্ট্যাটাসের সাদামাটা কথাগুলোই সেই হাহাকার লুকিয়ে রাখতে পারেননি সাকিব।

সাকিব আরো লেখেন, ‘আমার বাবা যেমন মানুষ, আশা করছি আমি তার অর্ধেক হতে পারবো। আশা করছি আমি বাবার মতোই নম্র হবো এবং আমার মস্তক মাটির দিকে অবনত থাকবে। আব্বা, আপনাকে ভালোবাসি।’

সাকিবের লেখা প্রতিটি বাক্যে ফুটে উঠেছে বাবাকে সব সময় কাছে না পাওয়ার যন্ত্রণা। প্রকাশ পেয়েছে বাবা-সন্তানের কাছেকাছি থাকার চিরন্তন আকুলতা। বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি নিতে থাকা সাকিব নিশ্চয় বাবার অনুপ্রেরণায় আরো বেশি করে জ্বলে উঠার চেষ্টা করবেন।






মন্তব্য চালু নেই