মেইন ম্যেনু

হত্যার পর স্বামীর লাশ গুম করতে গিয়ে ধরা পড়লেন স্ত্রী

ভারতের হায়দ্রাবাদে এক নারী তার স্বামীর লাশ মোটরসাইকেলে নিয়ে ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়ার পর পুলিশের কাছে ধরা পড়েছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, তিনিই হত্যা করেছেন স্বামীকে।

শনিবার প্রাভাল্লিকা মেনডেম নামের ২৫ বছর বয়সী ওই নারীকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ওই নারী তার স্বামীর মাথা দেয়ালের সঙ্গে আছড়ে এবং গোপনাঙ্গে লাথি মেরে হত্যা করেন। এরপর সে ও তার ১৬ বছর বয়সী ভাইপো লাশটিকে মোটরসাইকেলে করে শনিবার সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন লাশ গুম করার জন্য।

এ সময় মোটরসাইকেলে ‍তিনজনকে দেখে নাগেশওয়ারা রায় এবং মেহেন্দের নামের দুই পুলিশ কনস্টেবল তাদের মোটরসাইকেল থামানোর চেষ্টা করেন। এ সময় তার স্বামীর লাশ ওই কিশোরের কাঁধে হেলানো ছিল এবং পা মাটির সঙ্গে লেগে থাকা সত্বেও মোটরসাইকেল চালানো হচ্ছিল।

পুলিশ থামাতে বলার পরও তারা মোটরসাইকেল থামাচ্ছিলেন না। পুলিশ দুই কিলোমিটার ধাওয়া করে তাদের আটক করেন।

এ সময় তারা পুলিশকে বলেন যে, মদ খাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর পুল্লিয়াহ মেনদেম নামের ওই নিহতের লাশ তারা রাস্তার পাশে দেখতে পান। তবে পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদের পর তারা হত্যার কথা স্বীকার করেন।






মন্তব্য চালু নেই