মেইন ম্যেনু

হত্যার সাক্ষী পাখি!

একটি হত্যাকাণ্ডের সাক্ষ্য দিয়েছে কথা বলতে পারা এক তোতা পাখি। ব্যাপারটি নিয়ে মিশিগান পুলিশ ডিপার্টমেন্ট উভয় সংকট এ পড়েছে। গত বছর মার্টিন ডুরাম তার মিশিগানের বাড়িতে নিহত হয়েছিলেন। তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল এবং তার হত্যার সময় তার পোষা তোতা হত্যাকারীর কাছে ডুরাম এর প্রাণভিক্ষার জন্য প্রার্থনা করেছিল। এই ঘটনা একদমই অবিশ্বাস্য তবুও ডুরাম এর বাবা মা পাখিটির ভিডিও দেখিয়ে পুলিশ কে বোঝানোর চেষ্টা করছেন তাদের ছেলের শেষ কথাটি “গুলি কর না!

পুলিশ প্রথম এ ভেবেছিল, এটা জোড়া খুন এর কাহিনি কারণ তারা বাড়িতে মার্টিন ডুরাম ও ৪৫ বছর বয়সী ডুরাম এর স্ত্রী গ্লেন্না এর শরীর মাথায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে। কিন্তু তিনি (গ্লেন্না) এখন ও বেঁচে রয়েছেন। কিন্তু এখন মিশিগান রাজ্যের পুলিশ গ্লেন্না কে সন্দেহ করছেন। তারা মনে করছে, গ্লেন্না তার স্বামী কে হত্যা করে নিজে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল; যেটাতে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। কিন্তু গ্লেন্না এই দাবি অস্বীকার করেছে।

ডুরাম এর বাবা-মা হতাশ কারণ ঘটনার প্রায় এক বছর পাড় হয়ে গেলেও পুলিশ এখনও প্রধান অভিযুক্ত ব্যক্তিকে খুঁজে পায় নি। তারা পুলিশকে কথা বলা তোতা বন্ধুকে সাক্ষী বলছেন। ডুরামের মা মিসঃ লিল্লিয়ান বলেছেন, পাখিটি ভাল-মন্দ যাই শুনত সেটাই বলতে পারত। তারা আরও বলেছেন তোতা পাখি টি ডুরাম ও তার স্ত্রী এর কথা অনুকরণ করতে পারত। মার্টিন এর বাবার বিশ্বাস, বন্ধু তোতা পাখিটি তখন ডুরাম এর সাথেই ছিল এবং সে সত্য বলছে।






মন্তব্য চালু নেই