মেইন ম্যেনু

হলুদ সাংবাদিকদের প্রতি চবি ছাত্রলীগ সভাপতির কঠোর হুঁশিয়ারী

এখনো পর্যন্ত বিতর্কের ঊর্ধ্বে থাকা চট্টগ্রাম সিটি মেয়র জননেতা আ জ ম নাছির উদ্দিনের বিরুদ্ধে প্রকাশিত ২৪/৮/২০১৫ ইং তারিখে আজাদী পত্রিকার ১ম পৃষ্ঠায় প্রকাশিত ভুয়া সংবাদের প্রতিবাদে চবি ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ আলমগীর টিপুর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশ করেছে চবি ছাত্রলীগ।

অনুসন্ধানে জানা যায়,আজাদীর সংবাদে “মাননীয় মেয়র মহোদয় বহাদ্দারহাটস্থ ডায়মন্ড কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভায় অংশ নেন” বলে উল্লেখ করা হয়েছে।এই সংবাদকে সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলে উল্লেখ করে চবি ছাত্রলীগ দাবী করে,”মাননীয় মেয়র মহোদয় উল্লেখিত কোন সভায় বক্তব্য রাখা তো দূরের ব্যাপার অংশগ্রহণই করেন নি।সংবাদটিতে মেয়র মহোদয়ের ব্যক্তিগত সহকারি হিসেবে শিমুল নামটি এসেছে।অথচ এই নামে তাঁর কোন ব্যক্তিগত সহকারির অস্তিত্ব বর্তমানে তো নেই,অতীতেও ছিল না। মাননীয় মেয়র মহোদয়,জননেতা আ জ ম নাছির উদ্দিন তৃণমূল থেকে উঠে আসা দল-মত নির্বিশেষে সকলের জনপ্রিয় একটি নাম। মেয়র মহোদয়ের মাইক কেড়ে নেয়ার মত স্পর্ধা কোন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর এখনো হয়নি এবং ভবিষ্যতেও হবে না”।

মেয়রের বিরুদ্ধে করা সংবাদকে সম্পূর্ণ মিথ্যা,বানোয়াট আখ্যায়িত করে চবি ছাত্রলীগের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়,জননেতা আ জ ম নাছির উদ্দিন বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে যখন একের পর এক উন্নয়নমুখী কর্মসূচী হাতে নিয়েছেন, জলাবদ্ধতা দূরীকরণে কাজ শুরু করেছেন এবং দুর্নীতিগ্রস্থ সিটি কর্পোরেশনকে ঢালাওভাবে সাজিয়ে দুর্নীতিমুক্ত করার লক্ষ্যে এবং চট্টলা বাসিকে একটি মেগাসিটি উপহার দেওয়ার লক্ষ্যে নিরলস কাজ করে যাচ্ছিলেন ঠিক তখনি তাঁর জনপ্রিয়তায় এবং কাজে ভীতসন্তস্ত্র হয়ে একটি কুচক্রি মহল হলুদ সাংবাদিকতার আশ্রয় নিয়ে হীন উদ্দেশ্যে এই ধরণের ভুয়া, মিথ্যা,বানোয়াট, ভ্রান্ত সংবাদ পরিবেশন করেছে।শুধু তাই নয়,কুচক্রী মহল ছাত্রলীগ নামটি ব্যবহার করে ছাত্রলীগের মত প্রাচীন একটি সংগঠনকে কলংকিত করার অপচেষ্টা করেছে।

আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ হিসেবে চবি ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ আলমগীর টিপুর নেতৃত্বে চাকসু ভবনের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয় এবং প্রশাসনিক ভবন হয়ে বিভিন্ন অনুষদ ও সড়ক প্রদক্ষিণ করে ষ্টেশন চত্বরে গিয়ে একটি বিক্ষোভ সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।
মিছিলে আজাদী পত্রিকা এবং হলুদ সাংবাদিকতার বিরুদ্ধে স্লোগান দেওয়া হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতি মোঃ আলমগীর টিপু বলেন-“সাংবাদিকরা অনেক গুরু দায়িত্ব পালন করছেন।দেশবাসীর কাছে তারাই সকল সংবাদ পৌঁছে দেয়।কিন্তু তাই বলে কেউ হলুদ সাংবাদিকতা করবে, আর তা মেনে নেয়া হবে,এমনটি হবে না।তিনি হলুদ সাংবাদিকদের প্রতি তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়ে হলুদ সাংবাদিকদের সতর্ক করে দেন এবং ভবিষ্যতে এই ধরণের কোন ভুয়া সংবাদ প্রকাশিত হলে চবি ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেওয়া হবে না বলে কঠোর হুঁশিয়ারী উচ্চারন করেন।তিনি আরো বলেন ভবিষ্যতে যে সকল পত্রিকা হলুদ সাংবাদিকতার আশ্রয় নিয়ে এধরণের ভুয়া সংবাদ পরিবেশন করবে তাদের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নিষিদ্ধ ঘোষণা করবে ছাত্রলীগ।






মন্তব্য চালু নেই