মেইন ম্যেনু

হানিফ কাউন্টারে বিক্ষুব্ধদের আগুন

সিলেটের কদমতলী বাস টার্মিনালে হানিফ পরিবহন বাস কাউন্টার ভাঙ্চুর করেছে বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এসময় তারা কাউন্টারের সামনে থাকা কয়েকটি বাসে আগুনও দিয়েছে।

শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের জালালপুর নামক স্থানে সিলেটগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকের সাথে ধাক্কা লাগে।

এ দুর্ঘটনায় সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মোশতাক আহমদ পলাশের স্ত্রী মোরশেদা বেগম ও ছেলে মেহেদী নিহত হয়। এতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ক্ষোব্ধ হয়ে কদমতলী বাস টর্মিনালে হানিফ কাউন্টারে হামলা করে।

এ সময় কাউন্টার ভাঙ্চুর ও কাউন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা।

ফায়ার সার্ভিস সিলেটের সিনিয়র স্টেশন অফিসার জাবেদ হোসেন মো তারেক এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

রাত ৩টায় তারেক জানান, আগুন দেয়ার ঘটনায় কদমতলীতে হানিফ পরিবহনের কাউন্টার এবং যাত্রী পরিবহনের জন্য দুটি লেগুনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। খবর পেয়ে সিলেট নগরী থেকে দুটি এবং দক্ষিণ সুরমা থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার রাতে মর্মান্তিক ওই সড়ক দুর্ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতা মোশতাক আহমদ পলাশের স্ত্রী, ছেলে ছাড়াও আরো ৪ জন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে আবু সালেহ নামের একজন সেনা সদস্যও রয়েছেন। বাকি তিন জনের নাম-পরিচায় জানা যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই