মেইন ম্যেনু

হামাগুড়ি দিয়ে গরিলার খাঁচায় শিশু, অতঃপর…

হলিউডের ‘বেবিস ডে আউট’ সিনেমাটির কথা নিশ্চয় মনে আছে। সেখানে ছোট শিশুটিকে দুষ্ট লোকেদের থেকে আগলে রাখে বন্য প্রাণী গরিলা। নিজের অংশের আপেল খেতে দেয় শিশুটিকে। কিন্তু সিনেমার মতো বাস্তব এতো সুখকর নয়।

বেবিস ডে আউটের কাহিনীর মতোই তিন বছর বয়সী একটি শিশু যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইয়ো অঙ্গরাজ্যের সিনসিনাটি চিড়িয়াখানায় গরিলার খাঁচায় ঢুকে পড়ে। আর সঙ্গে সঙ্গেই আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে গরিলাটি। বাধ্য হয়ে গুলি চালায় চিড়িয়াখানায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মীরা। মৃত্যু হয় গরিলাটির। শিশুটি সামান্য আঘাত পেলেও সুস্থ আছে বলে জানা যায়।

শনিবার তিন বছরের ওই ছেলে শিশুটি হাড়াগুড়ি দিয়ে গরিলার খাঁচায় ঢুকে পড়ে। চিড়িয়াখানার পরিচালক থানে মাইনার্ড বলেন, শিশুটি হামাগুড়ি দিয়ে একটি বেড়া পার হয়ে স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় ওই খাঁচায় পড়ে যায়। ১৭ বছর বয়সী হারাম্বে নামের পুরুষ গরিলাটি বাচ্চাটিকে ধরে ফেলে। গরিলাটির ওজন ৪০০ পাউন্ড।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমে জানান হয়, গরিলাটি মাটিতে টেনে হেঁচড়ে বাচ্চাটিকে নিয়ে যাচ্ছিল। শিশুটি খাঁচায় পড়ে যাওয়ার প্রায় ১০ মিনিট পরে চিড়িয়াখানার বিপজ্জনক পশু নিবৃত্তকারী দলের সদস্যরা গরিলাটিকে গুলি করে হত্যা করে।

শিশুটিকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার জখম গুরুতর নয় বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

মাইনার্ড বলেন, চিড়িয়াখানা’র পশু নিবৃত্তদল ট্র্যাঙ্কুইলাইজের পরিবর্তে পশুটিকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নেয়। কারণ ট্র্যাঙ্কুলাইজার তাৎক্ষণিকভাবে কাজ করে না।

উল্লেখ্য, চিড়িয়াখানাটিতে ১১টি গরিলা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই