মেইন ম্যেনু

হারিয়ে যাওয়াদের ঘরে ফেরাবে অ্যাপ

ভারতের লখনউ গিয়ে হারিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সেই তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকেই তিনি এবার আবিস্কার করলেন নতুন কিছু। এখন নিজেই হারিয়ে যাওয়াদের খুজে বের করে ঘরে ফিরাতে গড়ে তুলেছে এক আশ্চর্য অ্যাপ। তার নাম শশাঙ্ক। তার এই অ্যাপের মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া ছেলে মেয়েরা তাদের বাড়িতে ফিরতে পারেন সহজে।

শশাঙ্কর কথায়, বাবার সঙ্গে লখনউয়ে এক উকিলের বাড়ি গিয়েছিল শশাঙ্ক৷ বয়স তখন মাত্র ছ’বছর৷ হঠাৎই বাবা-মার সঙ্গ ছাড়া হয়ে যায়। ১৪-১৫ ঘণ্টা এদিক-ওদিক ঘোরার পর শেষে বাবা-মায়ের কাছে ফিরে আসে সে৷ সেদিন শশাঙ্ককে বাঁচিয়ে দিয়েছিল লখনউয়ের রিকশাওয়ালাদের নেটওয়ার্ক৷

বড় হয়ে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হয়েছে শশাঙ্ক। ছোটবেলার হারিয়ে যাওয়ার স্মৃতিটা মনে গভীর ছাপ ফেলেছিল৷ তাই হারিয়ে যাওয়া শিশুদের ঘরে ফেরানোর স্বপ্ন দেখেছে সে৷‘হেল্পিং ফেসলেস’ নামে একটি মোবাইল অ্যাপ বানিয়ে ফেলেছে শশাঙ্ক৷ ‘ফেস রেকগনিশন’ ও তথ্য বিশ্লেষণের মতো প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই অ্যাপ শিশু পাচার রুখতে ও নিখোঁজ শিশুদের বাড়ি পৌঁছে দিতে সাহায্য করে।

কী ভাবে কাজ করে এই অ্যাপ?কম্পিউটার সায়েন্সে স্নাতক শশাঙ্কের কথায়, তথ্য ও প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা অসহায় পথশিশুদের সাহায্য করতে চাই৷ আমাদের স্বেচ্ছাসেবীরা এই লক্ষ্যেই কাজ করছেন৷

শশাঙ্ক জানান, স্বেচ্ছাসেবীদের ফোনে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপটি রয়েছে৷ তাঁরা যদি এমন কোনও শিশুর খোঁজ পান, যে হারিয়ে গিয়েছে বা যার সাহায্যের প্রয়োজন। স্বেচ্ছাসেবীরা তার ছবি তুলে নেন মোবাইলে৷ এর পর শিশুদের নিকটবর্তী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়৷

পুলিশ তদন্ত চালিয়ে শিশুটিকে শিশুকল্যাণ কমিটি বা নির্দিষ্ট হোমে নিয়ে যায়৷ পরে শিশুটির ছবি আমাদের ডেটাবেসে রান করানো হয়৷ একটি গাণিতিক প্রক্রিয়ায় ম্যাচিংয়ের কাজটা হয়, যা ৯৬ % ক্ষেত্রেই ঠিকই হয়৷ এর পর সেই শিশুর পরিবারের খোঁজখবর করে হোমে গিয়ে শিশুটিকে বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করা হয়৷ হারিয়ে যাওয়াদের নিজেদের ঘরে ফেরানোর কাজ চলছে চলবে দাবি শশাঙ্কের।






মন্তব্য চালু নেই