মেইন ম্যেনু

হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে কান্নাঘর, মন খারাপ হলেই কেঁদে হালকা হয়ে নিন

হঠাত্‍ করে হাসপাতালে কেন কান্নাঘর? তৃণমূল নেতার কথায়, কান্নার হাজারো গুণ। কান্না মনের কষ্টকে কমায়। মনকে হাল্কা করে। মনের ভেতরে জমে থাকা রাগ, দুঃখ, অভিমান, যন্ত্রণা সবই কমিয়ে দেয়। কান্নার স্পর্শে রাগ গলে পানি হয়ে যায়। নয়া এই থেরাপি দিয়ে ডাক্তারদের ওপর রাগ অভিমান রোগীর পরিবারকেও ট্যাকেল করা যেতে পারে। এমনটাই মত নির্মল মাজির। যুক্তিকে ধারালো করতে সামনে এনেছেন শ্মশান-শান্তির ব্যাখ্যা।

হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে কান্নাঘর। মন খারাপ হলেই কেঁদে হালকা হয়ে নিন। অভিনব আইডিয়ার নেপথ্য কারিগর তৃণমূলের চিকিত্‍সক নেতা নির্মল মাজি। মেডিক্যাল কলেজে শুরু হয়ে গেছে কান্নাঘর তৈরির কাজ। কুকুরের ডায়ালিসিসের উদ্যোগ নিয়ে এর আগে শিরোনামে এসেছেন তৃণমূলের চিকিত্‍সক নেতা। নির্মলের কান্নাঘর এখন কতটা সাকসেসফুল হয় সেটাই দেখার।-জিনিউজ






মন্তব্য চালু নেই