মেইন ম্যেনু

হাসপাতালে বাচ্চা বদল, ৪১ বছর পর ফাঁস !

৪১ বছর আগে কানাডার এক হাসপাতালে বাচ্চা বদলের ঘটনা ঘটে। এরপর কানাডার প্রত্যন্ত অঞ্চলের ঐ বাচ্চারা বেড়ে উঠেছেন একে অন্যের পরিবারে। ৪১ বছর আগে তাদের জন্মের সময় হাসপাতালে অদল-বদল হয়ে ভিন্ন পরিবারে চলে যান তারা। সম্প্রতি ডিএনএ পরীক্ষায় বিষয়টি ধরা পড়েছে।

খবরে বলা হয়, কানাডায় দ্বিতীয়বারের মতো এমন ঘটনা সামনে এলো। কানাডার ক্রি উপজাতির অন্তর্ভুক্ত লিওন স্যানসন ও ডেভিড তাইত- দু’জনেই এক শহরে বাস করেন। পাঁচ হাজার জনগোষ্ঠীর ছোট শহরে একে অপরের বন্ধুত্বও

অনেক দিনের। ৪১ বছর পর তারা নিজেদের এ পরিচয় জানতে পেরে হতবিহ্বল হয়ে পড়েছেন। এক সংবাদ সম্মেলনে কেঁদে ফেললেন দু’জনেই। বিবিসি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের নভেম্বরে হাসপাতালে অদল-বদল হওয়ার এমন একটি ঘটনা প্রথম প্রকাশিত হয়।

ওই ঘটনাতেও জন্মের পরপরই হাতবদলে একে অন্যের পরিবারে চলে যান লিউক মনিয়াস ও নরম্যান বার্কম্যান। লিউক ও নরম্যানের ঘটনার পর স্যানসন ও তাইত নিজেদের ডিএনএ পরীক্ষা করেন। কানাডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেই ফিলপট বলেছেন, ‘এ ঘটনা আমাদের মনে করিয়ে দেয়, উপজাতিদের স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন দরকার।’ তিনি এ ঘটনার তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও আশ্বাস দেন।

এদিকে সংবাদ সম্মেলনে অশ্রুবিগলিত স্যানসন ও তাইত বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা উদ্ভ্রান্ত, বিহ্বল ও ক্রুদ্ধ। আমাদের সঙ্গে যা কিছু খারাপ হয়েছে, তার জবাব চাই।’ তাইত বলেন, ‘আমরা এতদিন যাদের বাবা-মা-ভাই বলে এসেছি, তারা ঠিকই থাকবেন। শুধু নতুন একজন বাবা-মা-ভাই পেয়েছি।’ জানা গেছে, দুই পরিবার একসঙ্গে বসবাস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই