মেইন ম্যেনু

হাসিনা বা রাষ্ট্রপতির অধীনে নিরপেক্ষ কমিশন হতে পারে না : বিএনপি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বা রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদের অধীনে কোনও নিরপেক্ষ কমিশন গঠন হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নবম ‘কারামুক্তি দিবস’ উপলক্ষে এর আয়োজন করে ঢাকা মহানগর বিএনপি।গত ১১ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার কারামুক্তির দিন থাকলেও ঈদুল আজহার কারণে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়।

আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘২০১৪ সালের চেয়ে নিকৃষ্ট নির্বাচন করার জন্য সার্চ কমিটি ও নির্বাচন কমিশন গঠনের নামে মুলা ঝুলিয়েছে।শেখ হাসিনা বা রাষ্ট্রপতির অধীনে কোনও নিরপেক্ষ কমিশন গঠন হতে পারেনা।’

সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করে সার্চ কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সার্চ কমিটি গঠনের জন্য সকল রাজনৈতিক দল থেকে ৫ জন প্রতিনিধি নিয়ে আলোচনা করে নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে।’

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) তখনই নির্বাচন দেবেন, যখন তাকে বাধ্য করা যাবে।’

স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের যে আন্দোলন চলছে এবং ভবিষ্যতে হবে, তাতে দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে শরিক হতে হবে।’

দলের অন্যতম নীতি নির্ধারক আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘দেশে ভয়ভীতি সৃষ্টি করা হয়েছে।ক্ষমতাসীনরা ক্ষমতা আঁকড়ে রাখতে শুধু রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ নয়,সাধারণ মানুষের মধ্যেও ভয়-ভীতি সৃষ্টি করেছে। উন্নয়নের দোহাই দিয়ে তারা গণতন্ত্র হত্যা করেছে।’

সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রক্রিয়ার সমালোচনা করে বিএনপির এই নীতি নির্ধারক বলেন, ‘সার্চ কমিটির মাধ্যমে যাদেরকে ইসির নেতৃত্বে আনা হয়েছিল, তাদের দিয়ে কী নির্বাচন হয়েছে, তা মানুষ দেখেছে।সার্চ কমিটির নাটকের পরিচালক আওয়ামী লীগ।এই নাটক দেশের মানুষ দেখে না।’

আমির খসরু বলেন,‘আবার সেই সার্চ কমিটির কথা বলা হচ্ছে, দেশের মানুষকে প্রতারণা করার জন্য। বাংলাদেশের মানুষ এই সার্চ কমিটি আর গ্রহণ করবে না। রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ এবং নির্বাচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রক্রিয়ায় যুক্ত করতে হবে। তা না হলে গঠিত নির্বাচন কমিশন দিয়ে অনুষ্ঠিত কোনও নির্বাচন মানুষ কখনও গ্রহণ করবেনা।’

সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন না হলে তা প্রতিহত করতে বিএনপির নেতাকর্মীদের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।






মন্তব্য চালু নেই