মেইন ম্যেনু

হায় রে ইঁদুর!

ইঁদুরের আক্রমণে মারা গেল ১০ দিনের এক নবজাতক। তাও আবার হাসপাতালের নবজাতক নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (এনআইসিইউ)।

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের গুনতুর জেলায় বুধবার এই হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছে। নবজাতকের বাবা-মায়ের দাবি, হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের অবহেলার জন্য তাদের শিশুকে মরতে হয়েছে।

গুনতুর জেলার সরকারি জেনারেল হাসপাতালে বুধবার সকালে এনআইসিইউতে রাখা শিশুটিকে কয়েকটি ইঁদুর আক্রমণ করে। ১০ দিনের এই ছেলে শিশুটির বাঁ চোখ খুঁচিয়ে রক্তাক্ত করে। এবং চোখটির অর্ধেক অংশ ইঁদুরে খেয়ে ফেলে। শিশুটির দুই হাতেও কামড়ে জখম করে। জন্মগত রোগে ভুগতে থাকা শিশুটি ইঁদুরের এই আক্রমণ সহ্য করতে পারেনি। রক্তক্ষরণে ও যন্ত্রণায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে হয়েছে শিশুটিকে।

শিশুটির বাবা-মায়ের দাবি, মঙ্গলবার ভোরে ইঁদুরগুলো তাদের সন্তানকে কামড়ে-হেঁচড়ে ক্ষতবিক্ষত করে। তার মুখ হেঁচড়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। সকালের দিকে শিশুটির এই অবস্থা দেখে তার বাবা-মা চিকিৎসককে খবর দেয়। কিন্তু চিকিৎসকের কাছ থেকে দ্রুত সাড়া পাওয়া যায়নি।

শিশুটির মা চাবালি লক্ষ্মী দাবি করেছেন, ‘আমার সন্তানকে ইঁদুর হত্যা করেনি। হত্যা করেছে এই হাসপাতাল। নবজাতকদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে যাতে ইঁদুর ঢুকতে না পারে, সে ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষকে বারবার বলা হয়েছে। কিন্তু তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। যে কারণে আমাদের সন্তানকে এভাবে মরতে হলো।’

চাবালি লক্ষ্মী আরো বলেছেন, ‘আমরা সপ্তাহ খানেক আগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকদের ইঁদুরের উৎপাত সম্পর্কে অবহিত করেছি। কিন্তু তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।’

এদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ইঁদুরের আক্রমণে শিশুর মৃত্যুর এই ঘটনা একেবারেই অপ্রত্যাশিত। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই