মেইন ম্যেনু

হ্যাকারের বানান ভুলে বাংলাদেশ ব্যাংকের ১ বিলিয়ন রক্ষা

অন্যায়ভাবে এরই মধ্যে চারবার টাকা ট্রান্সফার করে নিয়েছে তারা। পঞ্চমবারও একই কাজ করতে গিয়ে ছোট্ট একটা বানান ভুলের কারণেই ধরা পড়েছে হ্যাকার দলের জোচ্চুরি। আর তাতেই রক্ষা পেয়েছে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে সংরক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রায় ১ বিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকা।

ব্যাংকের দুই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গত ফেব্রুয়ারি থেকে প্রায় ৩ ডজন ট্রাকা ট্রান্সফারের অনুরোধ এসেছে হ্যাকার দলের কাছ থেকে। সচেতনতার অভাবে তার মধ্যে চারবার অনুরোধ মেনে নিয়ে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ফিলিপাইনে পাঠানোও হয় প্রায় ৮০০ কোটি টাকা।

পঞ্চমবার টাকা পাঠানোর কথা ছিলো শ্রীলঙ্কায়। টাকা হস্তান্তর করতে হবে ২০ মিলিয়ন ডলার। কিন্তু সেটা করতে গিয়ে বানানের ভুল চোখে পড়ে ব্যাংক কর্মকর্তাদের। সন্দেহ বাড়ে। খোঁজ নিয়ে জানা যায় আগে পাঠানো টাকাগুলোও হ্যাকারদের কবলেই পড়েছে।

সবমিলিয়ে জানা যায়, বানান ভুলের কারণে এই ট্রান্সফারটি না আটকালে অন্তত ১ বিলিয়ন ডলার মানে বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকা ছিনিয়ে নিতে পারতো হ্যাকাররা।

‘শালিকা ফাউন্ডেশনে’র নামে টাকা হাতানোর পরিকল্পনা ছিলো হ্যাকারদের। কিন্তু ‘ফাউন্ডেশন’ বানানটি ভুল লেখায় বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে ক্লারিফিকেশনের জন্য পাঠানো হয়। তখনই সেই টাকা হস্তান্তর বন্ধ করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এই নামে শ্রীলঙ্কায় কোনো এনজিও নেই। এমনকি ওই প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে আর কোনো তথ্যও পাওয়া যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই