মেইন ম্যেনু

১০১ বছর বয়সে সাঁতার কেটে বিশ্বরেকর্ড

আসন্ন ব্রাজিলের রিও অলিম্পিকে দর্শকদের নজরকাড়া পারফরম্যান্স উপহার দিতে কঠিন অনুশীলনে ব্যস্ত নামকরা সব সাঁতারুরা। এরইমধ্যে সেইসব সাঁতারুকে অবাক করে দিয়েছেন শতবর্ষী জাপানি নারী মেইকো নাগাওকা। ১০১ বছর পার করেও তিনি দিব্বি সাঁতার কেটে গড়লেন বিশ্ব রেকর্ড।

জাপানের চিবা শহরে চলছে বর্ষীয়ানদের সাঁতার প্রতিযোগিতা। টুর্নামেন্টে ৪০০ মিটার ফ্রিস্টাইল বিভাগে ছিলেন ১০১ বছরের নাগাওকা। শতবর্ষ পার করা এই নারী সাঁতারুর সাঁতার দেখতে দর্শকরা ছিলেন উৎসুক। সবাইকে চমকে দিয়ে ২৬ মিনিট ১৬.৮১ সেকেন্ডে তিনি পার করেন নির্দিষ্ট দূরত্ব।

পানি থেকে উঠে আসতেই করতালিতে সম্মান জানানো হয় এই শতাব্দী প্রাচীন এই সাঁতারুকে। একটানা সাঁতার কেটেও ক্লান্ত নন নাগাওকা। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি জানান, অন্তত ১০৫ বছর পর্যন্ত সাঁতার কাটতে চাই।

উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন, একসময় প্রতিযোগিতা রোমাঞ্চকর পর্যায়ে চলে যায়। তখন পানির মধ্যে তীব্র লড়াই চলছে ৮০ বছরের এটসুকো আজুমির সঙ্গে ১০১ বছরের নাগাওকার। সুন্দর ছন্দে জল কেটে দুজনেই ফিনিশিং লাইনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন।

2016_07_15_20_16_33_aPeY7snTeP5umnA4bF09PgfTHQXv9n_original

তবে শেষ পর্যন্ত আশি বছরের আজুমি জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন। চ্যাম্পিয়ন না হতে পেরেও কোনো দুঃখ নেই নাগাওকার। পুরো অনুষ্ঠানজুড়ে তাকে ঘিরেই ছিল যাবতীয় কৌতুহল। নাগাওকা বলেন, ‘যখন আমি সাঁতার কাটি তখন আমি আমার নিজেকে নিজের মতো করে পাই।

প্রসঙ্গত, প্রথম বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন ১৯১৪ সালে জন্ম হয় নাগাওকার। দেখেছেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিভীষিকা। বিংশ শতাব্দীর প্রায় পুরোটাই তিনি প্রত্যক্ষ করেছেন। আর মনের আনন্দে সাঁতার কেটেছেন। এখনো সেই অভ্যাসটি ছাড়তে নারাজ তিনি।






মন্তব্য চালু নেই