মেইন ম্যেনু

১২২ বিড়ালের মালকিন সাইকো মহিলা

৫৫ বছরের এক ব্রিটিশ মহিলাকে স্থানীয় এলাকার লোকেরা পাগল বলেন। কারণটা জানেন কি? কারণ এই মহিলার মার্জার-প্রীতি। বিড়ালের প্রতি এই মহিলার ভালোবাসা এতটাই যে বাড়িতে ১২২টি বিড়াল পুষছেন ইনি। সিলভানা ভ্যালেন্টিনো লকে তাঁর চার বেডরুমের ফ্ল্যাটে ৫২টি ভাগ্যবান বিড়ালকে ঠাঁই দিয়েছেন। বাকিদের মধ্যে বাগানে থাকে ৪০টি বিড়াল ও বাকি ৩০টির এলাকার কোনো না কোনো জায়গায় ঘুরে বেড়ায়।

খোদ ভ্যালেন্টিনো মানছে, বিড়াল পোষাটা তাঁর একটা নেশায় পরিণত হয়েছে। তাঁর বক্তব্য, আমার মনে হয় আমার অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসঅর্ডার রয়েছে বিড়ালদের প্রতি। আমার মনে হয় এদের দেখাশোনা করাটাই আমার কাজ। যখনই কেউ আমার ফোন করে বলেন তার এলাকায় একটি অনাথ বিড়াল রয়েছে, আমি ফিরিয়ে দিতে পারি না।

বিড়ালের প্রতি এই মহিলার ভালোবাসা এতটাই যে নিজের গাড়ির নম্বর প্লেটে লিখে রেখেছে, মভাড ক্যাট ওয়েম্যান। দ্য মিরর এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এই মহিলা প্রতিবছর পোষ্যদের পিছনে ৯০ হাজার পাউন্ড খরচ করেন। এমনিতে ভ্যালেন্টিনার আচরণ স্বাভাবিকই। দুই সন্তান ও ৩২ বছরের স্বামী রয়েছে তাঁর, যিনি নিজের আয়ের অর্ধেকটাই খরচ করেন স্ত্রীর পোষা বিড়ালের জন্য।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই