মেইন ম্যেনু

১২ ঘণ্টা পর জঙ্গি আস্তানা থেকে মা-শিশু উদ্ধার

দীর্ঘ ১২ ঘণ্টা আটকে থাকার পর গাজীপুরের পাতারটেকে জঙ্গি আস্তানা থেকে এক মা ও তার শিশুকে নিরাপদে উদ্ধার করেছে পুলিশ। দোতলা ভবনটির নিচ তলা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ও জঙ্গিদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় তারা এখনও আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। গ্রেনেড ও গুলির শব্দে তিন বছরের শিশুটি এতোই ভয় পেয়েছে যে, সে তার মায়ের কোল থেকে কিছুতেই নামছে না।

শনিবার রাত নয়টায় অভিযান শেষে জঙ্গিদের লাশ হাসপাতালে পাঠানোর পর ভবনের নীচ তলার ফ্ল্যাট থেকে মা আয়েশা বেগম ও তার তিন বছরের মেয়ে নুরুন্নাহারকে বাইরে নিয়ে আসা হয়। এরপর মা ও মেয়েকে তাদের স্বজনদের কাছে পৌঁছে দেয় পুলিশ।

গাজীপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সবুর জানান, ‘তারা নীচ তলার একটি ফ্ল্যাটের রুমে ছিলেন। স্বজনদের কাছে তাদেরকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। তারা ভালো আছেন।’

এর আগে শনিবার সকাল ৯টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাজীপুরের পাতারটেকের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালায় পুলিশ। কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের শ্বাসরুদ্ধকর ১২ ঘন্টার অভিযান ‘অপারেশন শরতের তুফান’-এ ওই আস্তানায় সাত ‘জঙ্গি’ নিহত হয়। অভিযানে কাউন্টার টেরোরিজম এ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) এর সোয়াত, বোম ডিসপোজাল ইউনিট, গাজীপুরে জেলা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা অংশ নেন। ‘অপারেশন শরতের তুফানে’ নিহত সাত জঙ্গির ছবি প্রকাশ করা হলেও তাদের এখনও নাম, ঠিকানা ও পরিচয় প্রকাশ করতে পারেনি পুলিশ। তাদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে বলেও জানান পুলিশ কর্মকর্তারা।






মন্তব্য চালু নেই