মেইন ম্যেনু

১৪ ডিসেম্বরের আগে নৌকা-ধানের শীষ নিয়ে প্রচারণা নয়

মনোনয়ন প্রত্যাহারে আগে দলীয় প্রতীক নিয়ে কোনো প্রচারণা করা যাবে না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম।

বুধবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে নিজ কাযালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

প্রচারণা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘বিধিতে বলা আছে- ভোটের ২১ দিন আগে থেকে প্রার্থীরা কোনো ধরনের প্রচারণা চালাতে পারবে না। সে হিসাবে আজকে থেকে প্রচারণা শুরু হওয়ার কথা। তবে একেইভাবে ওই বিধিতে বলা আছে- কবে প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। এরপর প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালাবেন প্রার্থীরা।’

তিনি বলেন, ‘প্রতীক নিয়ে প্রচারণা করতে হলে ১৪ ডিসেম্বর থেকে করতে হবে। এই বিধিতে রাজনৈতিক দলের যেমন নির্বাচন করার সুযোগ আছে, তেমনি স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্যও নির্বাচন করার সুযোগ আছে। সে হিসাবে সব প্রার্থী প্রতীক নিয়ে প্রচারণা করতে হলে ১৪ তারিখ থেকে করতে পারবে।’

বুধবার থেকে প্রতীক নিয়ে প্রার্থীরা প্রচারণা করতে পারবে- একজন নির্বাচন কমিশনার এমন বক্তব্য দেয়ার পরই দ্বন্দ্ব দেখা দেয় ইসিতে। প্রার্থীদের মধ্যে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও নির্দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীরা বৈষম্যের শিকার হবে বলে অভিযোগ উঠে।

এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে আজ ইসি সচিব ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘সবার জন্য সমান সুযোগ দিতে, কারো প্রতি বৈষম্য না করতে ইসি সব বিষয় বিবেচনা করেছে। প্রতীক বরাদ্দের পর ১৪ ডিসেম্বর থেকে প্রচারণা করতে হবে- এটিই এখন কমিশনের সিদ্ধান্ত।’ তবে বুধবার থেকে প্রতীক ছাড়াই পথসভা, ঘরোয়া সভা, জসংযোগে বাধা নেই বলে জানান তিনি।

সোমবার নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ প্রতীক নিয়ে দলীয় প্রার্থীরা বুধবার থেকে প্রচারণা শুরু করতে পারবে বলে ঘোষণা দেন। সেই সঙ্গে স্বতন্ত্র ও নির্দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীরা বঞ্চিত হলেও তেমন কোনো অসুবিধা হবে না বলেও মত দেন তিনি।

তিনি এও বলেন, ৯ ডিসেম্বর প্রচারণা করবে প্রার্থীরা। প্রতীক নিয়ে করবে নাকি কিভাবে করবে সেটা তাদের বিষয়। স্বতন্ত্র বা কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রতীক ছাড়া প্রচারণা চালাতে না পারলে বিরাট কোনো ক্ষতি হবে না।






মন্তব্য চালু নেই