মেইন ম্যেনু

১৬২ বছরের ইতিহাস ছাড়িয়ে এবার চা উৎপাদনের বিপুল সম্ভাবনা

সৌরভ আদিত্য, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি : সারা দেশে চলতি চা উৎপাদন মৌসুমে রেকর্ড পরিমান চা উৎপাদনের বিপুল সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে বলে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবার চা শিল্পের ১৬২ বছরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ চা উৎপাদন হবে। চা বিশেষজ্ঞদের মতে, এছর দেশে ৭০ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদন হবে। যা সর্বকালের সর্ব রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যাবে।

বাংলাদেশ চা বোর্ডের নিয়ন্ত্রণাধীন মৌভীবাজার নিউ সমনবাগ চা বাগানের মহা-ব্যবস্থাপক মো: শাহজাহান আকন্দ জানান, গত চা উৎপাদন মৌসুমে (২০১৫) দেশে চা উৎপাদন হয়েছিল ৬৭.৩২ মিলিয়ন কেজি। যা ছিল এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ চা উৎপাদন। কিন্তু চলতি বছরের গত ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে চা উৎপাদন হয়েছে ২৫.৩৮ মিলিয়ন কেজি। যা গত বছরের ওই সময়ের চেয়ে ৮.১৬ মিলিয়ন কেজি বেশি। গত বছর (২০১৫) ৩০ জুন পর্যন্ত চা উৎপাদন হয়েছিল ১৭.২২ মিলিয়ন কেজি।

মহা ব্যবস্থাপক মো: শাহজাহান আকন্দ আরো জানান, চলতি চা উৎপাদন মৌসুমের পরবর্তী সময়ে আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে ৭০ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদনের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে এবং এ উৎপাদনের মধ্য দিয়ে দেশের চা শিল্পের ১৬২ বছরে ইতিহাসে সর্ব রেকর্ড ভেঙ্গে নতুন রেকর্ড গড়বে বলে মনে করছে বাংলাদেশ চা বোর্ড।

চা বোর্ড সূত্র জানায়, ব্লাক টি, গ্রীণ টি, সিলভার টি এর পর সম্প্রতি মহা ব্যবস্থাপক মো: শাহজাহান আকন্দ একটি নতুন জাতের চা উৎপাদন উদ্ভাবন করেছেন। যার ব্র্যান্ডিং নাম হচ্ছে সাতকড়া চা। সিলেটের ঐতিহ্যবাহী সাতকড়া ও চায়ের সংমিশ্রণের মাধ্যমে সুগন্ধি ও সুস্বাদু এই চা উদ্ভাবন করেন তিনি। খুব শীঘ্রই এই চা প্যাকেটজাত করে বাজারজাত করা হবে। যার বাজার মূল্য হবে প্রতি কেজি প্রায় ১৫০০ টাকা।

বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো: সাফিনুল ইসলাম এনডিসি পিএসসি বলেছেন, সাতকড়া চা ব্রিটেনসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে রপ্তানি করার পরিকল্পনা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই