মেইন ম্যেনু

২০১৭ মধ্যেই বাংলাদেশকে ঘিরে ফেলবে ভারত

ভারত ও বাংলাদেশের অনেক সীমান্তই কাঁটাতারে ঘেরা। বাকি সীমান্তও ২০১৭ সালের মধ্যেই বেড়া দিয়ে ঘিরে ফেলতে চায় ভারত। অবশ্য আন্তর্জাতিক সীমান্তে কাঁটাতার বসানোর ঘোষণা আগেই দিয়েছিল প্রতিবেশী দেশটি।

ভারতরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানা গেছে, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে থাকা মোট ৪ হাজার ৯৬ কিলোমিটার সীমানা পরিবেষ্টনের কাজ ২০১৭ সালেই শেষ করার টার্গেট নেয়া হয়েছে। আসাম, মেঘালয়, ত্রিপুরা ও পশ্চিমবঙ্গের গা ঘেঁষেই বাংলাদেশের সীমান্তরেখা। প্রত্যেক রাজ্যের সরকারের সঙ্গে আলোচনা করার পর এই পরিবেষ্টনের কাজ শুরু করা হবে।

এদিকে আগামী এক বছরের মধ্যে কাঁটাতার বসানোর কাজ শেষ করতে চায় বর্ডার ম্যানেজমেন্ট। স্বরাষ্ট্র অধিদপ্তরের অধীনস্থ বর্ডার ম্যানেজমেন্টের সচিব সুশীল কুমার বলেন, ‘ইন্দো-বাংলাদেশ সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া লাগানোর পরিকল্পনা নিয়েছে ভারত। ২০১৭ সালের মধ্যে তা শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নেয়া হয়েছে।’

গত শুক্রবার ত্রিপুরা রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব, রাজ্য পুলিশের প্রধান ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। কথা বলেন ওই এলাকার দায়িত্বে থাকা বিএসএফ’র সঙ্গেও। প্রত্যেকের সঙ্গে কথা বলে সুশীল কুমার বলেন, ‘যেখানে বেষ্টনী প্রয়োজন, সেখানেই দেয়া হবে। সীমান্তে নদী থাকলে বেষ্টনী দেয়া হবে না। কারণ সেটা প্রকৃতির তৈরি সীমানা।’

ত্রিপুরায় আন্তর্জাতিক সীমানা থেকে ১০০ গজ দূরে বেষ্টনী দেয়ার কাজ শুরু হয়েছে। ১৯৭৫ সালে স্বাক্ষরিত সীমান্ত চুক্তি অনুযায়ী কাঁটাতার দেয়ার কাজ চলছে। সুশীল কুমার বলেন, ‘স্থানীয় যেসব এলাকায় সমস্যা হতে পারে তা আলোচনার মাধ্যমে মিটিয়ে ফেলা হবে। আর জিরো পয়েন্টে কোনো সমস্যা হলে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।’






মন্তব্য চালু নেই