মেইন ম্যেনু

২০৫০ সালে পৃথিবী যেমন হবে

২০৫০ সাল। শুনে যতই মনে হোক না কেন, অনেক দেরি, দেখতে দেখতে চলে আসবে। ৩৪ পর ২০৫০ সাল। অনেক সায়েন্স ফিকশনই লেখা হয়েছে এ পর্যন্ত। কিন্তু বাস্তবে কেমন হবে সেই সময়টা? সেই অদ্ভুত সময়টায় এমন অনেক কিছু ঘটবে যা আপনার কল্পনাতেও নেই। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স গবেষক ডেভিড লেভি বলছেন, মানুষ রোবটের প্রেমে পড়বে এবং বিয়েও করবে রোবট-সঙ্গী বা রোবট-সঙ্গিনী। শুধু তাই নয়, এই বিয়ে আইনসম্মতও হবে।

তিনি বলেন, পৃথিবীর মোট জনসং‌খ্যা দাঁড়াবে ৯.৬ বিলিয়ন। এর অর্ধেক মানুষ বাস করবেন শহরে। পৃথিবীর অনেক জায়গায় বায়ুদূষণ বাড়বে মারাত্মক হারে। বাড়বে ক্যানসার ও ফুসফুসের রোগ। বিজ্ঞানীদের ধারণা, সারা পৃথিবীতে বছরে গড়ে প্রায় ৬ মিলিয়ন মানুষ মারা যাবেন। সাধারণের হাতের নাগালে এসে যাবে ড্রাইভারলেস কার। তাই কার অ্যাক্সিডেন্টের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কমবে।

ওয়র্ল্ড ফুটপ্রিন্ট নেটওয়র্ক জানিয়েছে, ১.১ বিলিয়ন মানুষ প্রয়োজনীয় পানি পাবেন না। ২.৫ বিলিয়ন মানুষ এমন অঞ্চলে বাস করবেন যেখানে পরিষ্কার জল পাওয়ার সমস্যা রয়েছে। মানুষের গড় আয়ু বাড়বে। ২০৫০ সালে গড়ে মানুষ ৭৬ বছর বয়স পর্যন্ত বাঁচবেন। বিজ্ঞানীরা জানান, মানুষের কাছের দৃষ্টিক্ষমতা বাড়বে, কমবে দূরের দৃষ্টি।

সারাদিন কম্পিউটার এবং গ্যাজেট আঁকড়ে থাকতে থাকতে দূরের জিনিস দেখার স্বাভাবিক ক্ষমতা কমবে। অর্থাৎ মাইনাস পাওয়ার বাড়বে। পৃথিবীর কোণে কোণে ছড়িয়ে পড়বে ইন্টারনেট। মোট জনসংখ্যার ৯৭.৫ শতাংশের কাছে ইন্টারনেট অ্যাকসেস থাকবে।

‘ডিজাইনার বেবি’ ট্রেন্ডে তৈরি হবে সুপারহিউম্যান। জেনেটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মাধ্যমে শিশুর গড়ন, বুদ্ধি, শারীরিক ক্ষমতা ইত্যাদি আগে থেকে চিকিৎসককে জানাবেন বাবা-মা। জিন মডিফিকেশন করে তৈরি হবে ডিজাইনার বেবি।






মন্তব্য চালু নেই