মেইন ম্যেনু

২০ বছর পর ফিরছেন অঞ্জু ঘোষ!

বাংলাদেশের এখন পর্যন্ত সবচে’ ব্যবসা সফল ছবির নায়িকা তিনি। তবে দেশ ছেড়ে নতুন মোহে টালিগঞ্জে পাড়ি জমান ‘বেদের মেয়ে জোসনা’র নায়িকা অঞ্জু ঘোষ। সেখানে প্রথমদিকে অনেক ছবিতেই অভিনয়ে দেখা গেছে তাকে।

কিন্তু কোনো এক অজানা কারণে টালিগঞ্জের ছবি থেকে ছিটকে পড়েন অঞ্জু। কলকাতার যাত্রাশিল্পী হিসেবে মঞ্চ মাতাতে শুরু করেন তিনি। টালিগঞ্জের ফিম্মের খ্যাতনামা তারকারাও শীতের মৌসুমে যাত্রায় অভিনয় করে থাকেন। সিনেমার নায়িকা অঞ্জু তাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বেশ নাম ডাক কামাতে থাকেন।

কিন্তু সেই সুখ বেশিদিন উপভোগ করতে পারেনি তিনি। কারণ বয়সের ভারে কমতে থাকে অঞ্জুর দর্শক চাহিদা। প্রধান চরিত্র থেকে মা-ভাবীর চরিত্রে কাজ করেন তিনি। এরপর চলে যান অবসরে। তবে এই দীর্ঘ পথচলায় বাংলাদেশে আসা হয়নি তার। এদেশের পত্র পত্রিকায় তাকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে তেলে বেগুনে জ্বলে উঠেছেন সব সময়ই। যদিও তার এই চটে যাবার পেছনে কারণটাও যৌক্তিক।

কলকাতায় থাকলেও কখনো কখনো তাকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে ঢাকায় এসেছেন অঞ্জু। কোনো এক আত্মীয়ের বাড়িতে চুপি সারেই সময় কাটাচ্ছেন তিনি। এ ব্যাপারে সিনিয়র অভিনেত্রীর ভাষ্য, বাংলাদেশ তার নিজের দেশ। তাহলে নিজের দেশে আসলে কেনো তাকে লুকিয়ে আসতে হবে!

প্রায় ২০ বছর আগে দেশ ছাড়েন অঞ্জু। শোনা যাচ্ছে, ফের বাংলাদেশের ছবিতে অভিনয় করবেন তিনি। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনায়ও নাম লেখাবেন। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশর গুণী পরিচালক সাইদুর রহমান সাইদ কলকাতায় অঞ্জুর সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় ওই ছবির সম্ভাব্য নায়ক পলাশও ছিলেন। যিনি ‘কুসুমপুরের গল্প’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। আরো ছিলেন পরিচালক নাসির মিলন।

জানা গেছে, ছবিতে কলকাতার থেকে প্রথম সারির একজন নায়িকাকে নেয়া হবে। তবে নাম ঠিক না হওয়া ছবিতে অঞ্জু ঘোষ কোন চরিত্রে অভিনয় করবেন তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। আসছে এপ্রিল মাসে পরিচালক ফের কলকাতায় যাবেন ‘সওদাগর’ খ্যাত নায়িকার সঙ্গে চূড়ান্ত আলাপের জন্য সূত্র এমনটাই জানিয়েছে।

তবে শুটিং শুরু না হওয়া পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না যে অঞ্জু ঢাকাই ছবিতে ফের অভিনয় করবেন। কারণ এর আগেও অনেকেই তাকে চলচ্চিত্র ফেরানোর চেষ্টা করেও আলোর মুখ দেখেনি।

অঞ্জুর প্রকৃত নাম অঞ্জলি। ১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের মঞ্চনাটকে জনপ্রিয়তার সঙ্গে অভিনয় করেন। ১৯৮২ সালে ফোক-ফ্যান্টাসি চলচ্চিত্র নির্মাতা এফ কবির চৌধুরী চলচ্চিত্রে আনেন তাকে। তাকে নিয়ে তৈরি করেন ‘সওদাগর’ ছবি। ১৯৮৯ সালে ‘বেদের মেয়ে জোছনা’ তাকে এনে দেয় রাতারাতি জনপ্রিয়তা। ঢালিউডে প্রায় ৫০ টি ছবির অভিনেত্রী তিনি।

১৯৯৫ সালে এই সাইদুর রহমান সাইদ পরিচালিত ‘নেশা’ ছবির কাজ শেষ না করেই ১৯৯৬ সালে কলকাতা চলে যান অঞ্জু।-আরটিভি



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই