মেইন ম্যেনু

২৪ সেপ্টেম্বরের আগেই রিজার্ভ চুরির পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন

আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের আগেই যেকোনো দিন বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। রোববার সচিবালয়ে তার কার্যালয়ে তিনি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর তিনি বিশ্বব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য ওয়াশিংটন যাবেন। তার আগেই যেকোনো দিন তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।

এর আগে গত মঙ্গলবার তিনি বলেছিলেন, চলতি আগস্ট অথবা আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। এছাড়া গত ২১ জুন অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন ঈদের পর প্রকাশ করা হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘রিপোর্ট পাবলিকেশনের ডিলের একটা কারণ হচ্ছে, কিছু অ্যাকশন পর্যবেক্ষণে আছে। এর আগে এটি বেরিয়ে গেলে কিছুটা সমস্যা তৈরি হতে পারে।’

গত ফেব্রুয়ারিতে সুইফট মেসেজিং সিস্টেমের মাধ্যমে ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের আট কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপাইনসে সরিয়ে নেয়া হয়, যাকে বিশ্বের অন্যতম বড় সাইবার চুরির ঘটনা বলা হচ্ছে।

রিজার্ভ চুরির এই ঘটনা বাংলাদেশ জানতে পারে ঘটনার এক মাস পর, ফিলিপাইনসের একটি পত্রিকার খবরের মাধ্যমে। বিষয়টি চেপে রাখায় সমালোচনার মুখে গভর্নরের পদ ছাড়তে বাধ্য হন আতিউর রহমান; বড় ধরনের রদবদল করা হয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের শীর্ষ পর্যায়ে।

এ ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের দায়ের করা মামলার তদন্তে থাকা বাংলাদেশ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ বলেছে, সুইফটের টেকনিশিয়ানদের ‘অবহেলার কারণেই’ বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুইফট সার্ভার হ্যাকারদের সামনে অনেক বেশি উন্মুক্ত হয়ে পড়ে।

ঘটনা তদন্তে পরে সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। গত ৩০ মে সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে এ সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন কমিটির প্রধান।






মন্তব্য চালু নেই