মেইন ম্যেনু

২৬ বছর পর নারী প্রধানমন্ত্রী পেল ব্রিটেন

২৬ বছর পর নারী প্রধানমন্ত্রী পেল ব্রিটেন। আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ডেভিড ক্যামেরনের পদত্যাগের পর টেরেসা মে’কে দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়।

ডেভিড ক্যামেরনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করার পর টেরেসাকে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়। রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের আমন্ত্রণে তিনি বাকিংহাম প্যালেসে যান এবং রানী তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব অর্পন করেন।

১৯৫৬ সালে সাসেক্সে জন্মগ্রহণ করেন টেরেসা মে। ৫৯ বছর বয়সী এই নারী ১৯৯৭ সালে বার্কশায়ারের মেইডেনহেড থেকে প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ২০১০ সালে ক্যামেরন সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। দলের কয়েকজন নেতা প্রধানমন্ত্রী পদ নিতে আগ্রহ না দেখানোয় তার ওপরই এ দায়িত্ব বর্তায়।

দায়িত্ব নেয়ার পর টেরেসা এমন একটি দেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন, যা সবার জন্য কাজ করবে, শুধুমাত্র কিছু সুবিধাভোগীর জন্য নয়। ভালো ব্রিটেন গড়ে তোলাই তার মিশন বলেও জানান তিনি।

এর আগে ডাউনিং স্ট্রিট ত্যাগের সময় ডেভেড ক্যামেরন বলেন, তেরেসা মের নেতৃত্বে ব্রিটেন একটি শক্তিশালী ও স্থিতিশীল সরকার পাবে। আমি আশা করছি ইউরোপীয় ইউনিয়েনের সঙ্গে তার সংলাপ হবে গঠনমূলক।

টেরেসা মে ব্রিটেনের দ্বিতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী। এর আগে দেশটির একমাত্র নারী প্রধানমন্ত্রী ছিলেন মার্গারেট থ্যাচার। তিনি ১৯৭৯ থেকে ১৯৯০ সাল ব্রিটেনের মসনদে ছিলেন।

গত ২৩ জুন অনুষ্ঠিত গণভোটে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বিচ্ছেদের পক্ষে রায় যাওয়ার পর পদত্যাগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। আজ তার পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার পর দেশটির মসনদে বসলেন টেরেসা।






মন্তব্য চালু নেই