মেইন ম্যেনু

২৮ বছর পর প্রশংসাপত্র পেলেন শাহরুখ খান

কলেজ থেকে পরীক্ষায় পাস করার ২৮ বছর পর স্নাতক প্রশংসাপত্র হাতে পেলেন বলিউডের সুপারস্টার শাহরুখ খান। দিল্লির হংসরাজ কলেজে আজ থেকে ২৮ বছর আগে অর্থনীতি নিয়ে পড়াশোনা করেছিলেন শাহরুখ। কিন্তু সে সময় পরীক্ষা শেষে আর ডিগ্রি পাসের প্রশংসাপত্র নেওয়া হয়নি। সম্প্রতি শাহরুখ অভিনীত ‘ফ্যান’ ছবির মিউজিক প্রকাশ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দিল্লিতে যান শাহরুখ। অনুষ্ঠানের ফাঁকে চলে যান দিল্লিতে তাঁর পুরোনো হংসরাজ কলেজে।

শাহরুখ বলেন, ‘১৯৮৮ সালে আমি এই কলেজ ছেড়েছিলাম। তার পর আর আসা হয়নি কলেজে।’ আজ ৫০-এর কোটায় পা রাখা শাহরুখ নিজের কলেজের ক্যাম্পাসসহ বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখেন। ক্যাম্পাসের পড়ুয়াদের সঙ্গেও বেশ খানিকটা সময় আড্ডা দেন। পুরোনো দিনের স্মৃতি স্মরণ করে আবেগপ্রবণও হয়ে পড়েন তিনি। বলেন, ‘আজ সঙ্গে আমার সন্তানরা থাকলে তাদের কলেজের প্রতিটি কোনা ঘুরিয়ে দেখাতাম।’

১৯৮৫ থেকে ১৯৮৮ ব্যাচের ছাত্র শাহরুখ খানের হাতে স্নাতক প্রশংসাপত্র তুলে দিতে পেরে খুশি হংসরাজ কলেজ কর্তৃপক্ষও। কলেজের অধ্যক্ষ রাম শর্মা বলেন, ‘এই কলেজের সুপারস্টার ছাত্রকে পেয়ে কলেজ আজ গর্বিত। এত বছর ধরে কলেজ কর্তৃপক্ষ সযত্নে শাহরুখের প্রশংসাপত্র সযত্নে তুলে রেখেছিল।’ নিজের স্নাতক স্তরের প্রশংসাপত্র গ্রহণ করার পর আর দশটা ছাত্রছাত্রীর মতোই নিয়মমাফিক কলেজের নিবন্ধন খাতায় সই করেন বলিউড বাদশা।

দিল্লিতে জন্মগ্রহণ করার পর শাহরুখ খান নয়াদিল্লির রাজেন্দ্র নগর এবং গৌতম বুদ্ধ নগরের বিভিন্ন জায়গায় বাস করেন। প্রথম জীবনে দিল্লির সন্ত কলম্বাস স্কুল থেকে পাস করেন তিনি। তার পর দিল্লির হংসরাজ কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক করেন। দীর্ঘ ২৮ বছর পর যখন সেই কলেজে এসে স্নাতকের প্রশংসাপত্র হাতে পেলেন শাহরুখ, ততদিনে ডক্টরেট উপাধি পেয়ে গেছেন তিনি। গত বছর স্কটল্যান্ডের এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ডক্টরেট উপাধি দেওয়া হয় তাঁকে। তবুও নিজের স্নাতকের প্রশংসাপত্র এতদিন পর হাতে পেয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত শাহরুখ বলেন, ‘এই সময়টা আমার জীবনে একটা বিশেষ মুহূর্ত।’






মন্তব্য চালু নেই