মেইন ম্যেনু

২ লাখ টাকার কবুতরের জোড়া এখন ১৫ হাজার টাকায়!

হরেক রকমের কবুতর। কবুতর দেখতে অনেকে ভিড় করছেন জাতীয় প্রেসক্লাবে। প্রেসক্লাবের হল রুমটি বৃহস্পতিবার থেকে বাহারি রঙের কবুতরে সয়লাব। ২ লাখ টাকার কবুতরের জোড়া এখন ১৫ হাজার টাকায়! তবে আজই শেষ সময়।

হলরুমে দুই দিনব্যাপী শৌখিন কবুতর প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ফ্যান্সি পিজন বিডার্স অ্যাসোসিয়েশন।

অনেকে বাহারি রঙের কবুতরের সাথে তুলছেন সেলফি। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে কবুতর দেখতে আসছেন লোকজন। কখনো ভাবতেও পারেননি এত সুন্দর ও এত রঙিন কবুতর থাকতে পারে।

প্রদর্শনীতে বুখারা ট্রাম্পিটার, জ্যাকোবিন, সো কিং, লাহোর, সিরাজী, রিভার্স সুইং পটার, হানা পটার, আমেরিকান হেলমেট, আমেরিকান কমরনার, স্টোর গার্ড সেকার, মালটেস, ফ্রিল ব্যাক, মডেনা, ফ্যানটেল, অরিয়েন্টল ফ্রিলসহ অন্তত ২০ প্রজাতির কবুতর রয়েছে প্রেসক্লাবে।

কবুতর খামারিদের মতে, বাংলাদেশে প্রায় দেড়শ’ প্রজাতির কবুতর আছে। একশ’ টাকা থেকে শুরু করে একজোড়া কবুতরের সর্বোচ্চ দাম আছে তিন লাখ টাকা পর্যন্ত।

তাদের মতে, তবে দাম নির্ভর করে কবুতরের বৈশিষ্ট্য ও সৌন্দর্যের ওপর। যে কবুতর দেখতে যত বেশি সুন্দর, সেই কবুতরের দামও বেশি। সাধারণত যেসব কবুতর সচরাচর পাওয়া যায় সেসব কবুতরের দাম কমই থাকে।

একজোড়া বুখারা ট্রাম্পিটার কবুতরের বাজার মূল্য ৬০ থেকে ৭০ হাজার টাকা। এই কবুতরের ডাক ‘বাকবাকুম’ নয়, গুনগুন করে ডাকে।

‘জ্যাকোবিনে’র গলায় সিংহের মতো কেশর। এর বাজার মূল্য ৫০ থেকে ৫৫ হাজার টাকা। ‘সো কিং’ দেখতে অনেক বড়। মুরগির মতো দেখতে।

‘স্টোর গার্ড সেকার’ সাপের মতো সেক করে। ‘ফ্রিল ব্যাক’ প্রজাতির কবুতরের পিটের চালক কোঁকড়ানো। দেখতে আকর্ষণীয়। এর বাজারমূল্য ২০ থেকে ৮০ হাজার টাকা। ‘ফ্যানটেল’ কবুতরের লেজ পাখনার মতো।

প্রদর্শনীর অর্গানিইজিং সেক্রেটারি মনজুর আহম্মেদ জানান, ১২ জন খামারির হাতে ক্রেস্ট তুলে দেয়া হবে। বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া প্রদর্শনী আজ শুক্রবার রাত ৮টায় শেষ হবে।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই