মেইন ম্যেনু

৩০৮ রানের টার্গেট ছুড়ে দিল বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি নিষ্প্রাণ ড্রয়ের পর আজ থেকে শুরু হলো ওয়ানডে সিরিজ। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে টস জিতে ব্যাট করে বাংলাদেশ।

৪৯.৪ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩০৭ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। জয়ের জন্য ভারতকে করতে হবে ৩০৮ রান। ভারতের বিপক্ষে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ দলীয় রান। বাংলাদেশের হয়ে ব্যাট হাতে অবদান রাখেন তামিম ইকবাল (৬০), সৌম্য সরকার (৫৪), সাকিব আল হাসান (৫২), সাব্বির রহমান রুম্মন (৪১) ও শেষ দিকে মাশরাফি (১৮ বলে ২১ রান।)

বল হাতে ভারতের সেরা বোলার রবীচন্দ্রন অশ্বিন। তিনি ৩টি উইকেট নিয়েছেন। এ ছাড়া দুটি করে উইকেট নেন ভুবনেশ্বর কুমার ও উমেশ যাদব।

তামিমের সঙ্গে ১০২ রানের জুটি করে ৫৪ রান করে রান আউটে কাটা পড়েছেন সৌম্য সরকার। বৃষ্টির পর খেলতে নেমে অশ্বিনের বলে রোহিত শর্মার হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তামিম ইকবাল। আউট হওয়ার আগে ৬০ রান করেন তিনি। দলীয় ১২৯ রানে অশ্বিনের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হন লিটন দাস (৬)। দলীয় ১৪৬ রানে অশ্বিনের বলে উঠিয়ে মারতে গিয়ে রোহিত শর্মার তালুবন্দি হন মুশফিকুর রহিম (১৪)।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখী হন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। মাত্র ৪০ বলে দলীয় ফিফটি পূরণ করেন দুজন, যা ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় দ্রুততম। এর আগে ২০১১ সালে ৩০ বলে দলীয় ফিফটি করেছিল বাংলাদেশ। ১৩.১ ওভারে দলীয় শতরান পূর্ণ করেন সৌম্য ও তামিম। কিন্তু হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেওয়ার পরই ভুল বোঝাবুঝির শিকার হয়ে রান আউট হন ঠাণ্ডা মাথার ব্যাটসম্যান সৌম্য।

সাকিব আল হাসানকে নিয়ে ৮৩ রানের কার্যকর জুটি গড়েন সাব্বির রহমান। কিন্তু দলীয় ২২৯ রানে ব্যক্তিগত ৪৩ রানে জাদেজার বলে বোল্ড হয়ে যান সাব্বির। এরপর নাসির হোসেনকে নিয়ে ৫২ রানের জুটি গড়েন সাকিব। কিন্তু দলীয় ২৬৭ রানে যাদবের বলে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকা জাজেদার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরে যান সাকিব (৫২)।

দলীয় ২৮২ রানে আউট হন নাসির (৩৪) ও ২৮৬ রানে ফিরে যান রুবেল হোসেন (৪)। এরপর ২৯৮ রানে আউট হন তাসকিন আহমেদ। ৩০৭ রানে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন মাশরাফি।

বাংলাদেশ দলে আজ দুজনের অভিষেক হচ্ছে। লিটন কুমার ও মুস্তাফিজুর রহমান প্রথমবারের মতো ওয়ানডে একাদশে সুযোগ পেয়েছেন।

প্রথমবারের মতো চার পেসার নিয়ে ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ। মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে পেসার হিসেবে রয়েছেন তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান।

রনি তালুকদার, মুমিনুল হক ও আরাফাত সানী দলের বাইরে থাকবেন।

বাংলাদেশ একাদশ :
মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান রুম্মান, নাসির হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও তাসকিন আহমেদ।

ভারতীয় একাদশ:
মহেন্দ্র সিং ধোনি (অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, অজিঙ্কা রাহানে, সুরেশ রায়না, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ভুবনেশ্বর কুমার, উমেশ যাদব ও মোহিত শর্মা।






মন্তব্য চালু নেই