মেইন ম্যেনু

৪০ বছর পর ভাইয়ের সেতার পেলেন শেখ হাসিনা

শেখ কামালের ব্যবহার করা একটি সেতার ফিরে এসেছে বোন শেখ হাসিনার কাছে, যা তিনি সংরক্ষণের জন্য বঙ্গবন্ধু জাদুঘরকে দেবেন।

বঙ্গবন্ধুর বড় ছেলে শেখ কামালের বন্ধু কাজী শামসুদ্দিন বৃহস্পতিবার গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে ভাইয়ের সেতারটি তার হাতে তুলে দেন।

গণভবনে সেতারটি হস্তান্তরের সময় বাচ্চুর বড় ভাই কাজী মইনুদ্দিন রাজও উপস্থিত ছিলেন।

সেতারটি বঙ্গবন্ধু জাদুঘরে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন।

বাচ্চু ও রাজের বাবা কাজী আবু নাসেরের সময় থেকেই এই পরিবারের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু পরিবারের ঘনিষ্ঠতা ছিল। সেই ঘনিষ্ঠতার সূত্র ধরেই কাজী আবু নাসের এই সেতারটি শেখ কামালকে উপহার দিয়েছিলেন।

সেতারটিতে কিছু সমস্যা দেখা দিলে বন্ধু বাচ্চু কলকাতা যাওয়ার সময় এটি সারিয়ে আনতে দেন শেখ কামাল। বাচ্চু কলকাতায় থাকার সময়েই ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নিহত হন।

এরপর সেতারটি বাচ্চুদের ঢাকার তেজকুনী পাড়ার বাসায়ই ছিল। এখন তা যাবে বঙ্গবন্ধু জাদুঘরে।

ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে শেখ কামালের পরিচিতি বেশি হলেও তিনি সংস্কৃতি সংগঠকও ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সময় নাট্যচর্চায় যুক্ত ছিলেন তিনি।

স্বাধীনতার পরপরই শেখ কামাল স্পন্দন শিল্পগোষ্ঠী নামে একটি সাংস্কৃতিক সংগঠন গড়ে তোলেন।

দুই বছরের ছোট ভাইয়ের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে শেখ হাসিনা সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে বলেন, “স্বাধীনতার পরপরই এদেশের ছেলে-মেয়েদের খেলাধুলা, সংস্কৃতি চর্চা সর্বক্ষেত্রে গড়ে তোলা; তাদের মন-মানসিকতাকে আরো উন্নত করা। এটাই ছিল তার (শেখ কামাল) লক্ষ্য।”






মন্তব্য চালু নেই